শনিবার, ১৮ সেপ্টেম্বর ২০২১, ০৭:১৫ পূর্বাহ্ন
মুজিব বর্ষ
শিরোনাম :
৮ দিনেও খোঁজ মেলেনি চুরি হওয়া নবজাতকের ধারের ১০ কেজি চাল ফেরৎ চাওয়ায় ভাইয়ের ছেলের হাতে চাচা খুন! আটক তিন। বানারীপাড়ায় অধ্যক্ষ নিজাম উদ্দিন চির নিন্দ্রায় শায়িত নওগাঁয় প্রধানমন্ত্রীর উপহারের ঘর পেয়েও বাড়িছাড়া প্রতিবন্ধী পরিবার ত্রিশা‌লে জাতীয় কৃষক স‌মি‌তির সমা‌বেশ অনু‌ষ্ঠিত বাগেরহাটে চার দফা দাবিতে ডিপ্লোমা শিক্ষার্থীদের মানবন্ধন বাগেরহাট জেলা স্বাস্থ্য অধিকার ফোরামের নব গঠিত কমিটির পরিচিতি সভা মোরেলগঞ্জ আওয়ামী লীগ ১৭ বিদ্রোহী প্রার্থী কে দল থেকে বহিস্কার নওগাঁয় ৪ উপজেলার স্মার্ট জাতীয় পরিচয়পত্র বিতরন কার্যক্রম শুরু হয়েছে ৪৪ জেলে সহ ৪ টি ফিশিং ট্রলার আটক
সিলেট বিভাগের সকল জেলায় জেলা প্রতিনিধি আবশ্যক। আগ্রহীগন যোগাযোগ করুন somoysongjog24@gmail.com

সাতক্ষীরার কলারোয়ায় পল্লী দারিদ্র বিমোচন ফাউন্ডেশন থেকে ঋণ নিয়ে ৩হাজার পরিবার স্বাবলম্বী

জুলফিকার আলী,কলারোয়া সাতক্ষীরাঃ
  • Update Time : সোমবার, ২৮ জুন, ২০২১
  • ২৫ Time View

সাতক্ষীরার কলারোয়ায় পল্লী দারিদ্র বিমোচন ফাউন্ডেশন থেকে ঋণ নিয়ে ৩হাজার
পরিবার স্বাবলম্বী হয়েছে। উপজেলা পল্লী দারিদ্র বিমোচন ফাউন্ডেশন
কর্মকর্তা সাইফুল আলম জানান, কলারোয়া পৌরসভাসহ উপজেলার ১২টি ইউনিয়নে
১৩৩টি সমিতি রয়েছে। এই সমিতির ৫হাজার সদস্যকে উপজেলা পল্লী দারিদ্র
বিমোচন ফাউন্ডেশন থেকে বিভিন্ন মেয়াদে ৫ কোটি টাকার ঋণ দেয়া হয়েছে। এই
উপজেলার অসহায় গরিব মানুষকে খুদ্রঋণ নিয়ে হাস-মুরগী, গরু-ছালগ, ধান-চাল,
মাছ চাষ ও সেলাই মেশিনে কাজ করে ৩হাজার পরিবার স্বাবলম্বী হয়েছে। এছাড়া
প্রধান মন্ত্রীর কাছ থেকে কলারোয়ার ৩জন ঋণ গ্রহীতা পুরস্কার পেয়েছেন। এরা
হলেন- উপজেলার জালালাবাদ গ্রামের হামিদ আলী মোল্লার ছেলে ইসমাইল হাসেন,
উপজেলার পাঁচপোতা গ্রামের শাহাজদ্দীন ও উপজেলার শ্রীপতিপুর গ্রামের
খন্দকার আব্দুর রহমানের ছেলে আব্দুর রহিম। তিনি আরো বলেন,এই সমিতি (১)
পল্লীর অসহায় ও দরিদ্র জনগোষ্ঠিকে তাদের দারিদ্রতা দূরীকরণের উদ্দেশ্যে
সংগঠন সৃষ্টি, সংগঠিত জনগোষ্টির মধ্যে সচেতনতা সৃষ্টি ও নেতৃত্ব তৈরী,
স্বাবলম্বী করে তোলার ল্েয পুজি গঠনে সহায়তা। (২) আর্থিকভাবে স্বয়ম্ভর
করার ল্েয ঋণদান কর্মসূচী, ঋনের সঠিক ব্যবহার, আর্থিক ও সামাজিক উন্নতির
জন্য নেতৃত্ব বিকাশ, দতা উন্নয়ন প্রশিন (যেমন: প্রাণি সম্পদ এর উন্নয়ন,
বৃ রোপন, সজ্বি চাষ, মৎস্য পালন, প্যাকেট তৈরী, সাইলেজ প্রকল্প,
জনস্বাস্থ্যের ওপরে সচেতনতা বৃদ্ধি (বিশেষ করে সদস্য ও তাদের সন্তানদের
স্বাস্থ্যসেবা নিশ্চিত করনের উপকরন সরবরাহ। (৩) নারী ও পুরুষের মধ্যে
বৈষম্যের সমতা বিধান করনের জন্য সুফলভোগী ও সহকর্মীগনকে প্রশিন প্রদান
করা, সুফলভোগী সদস্যদের মেধাবী সন্তানদের আর্থিক সহায়তা ও কর্মীর
সন্তানদের শিা সহায়ক ভাতা প্রদান, সুফলভোগী সদস্যগনের নবজাতকদের জন্য
সঞ্জয়ী স্কীম খোলা। জেন্ডার ফোকাল পয়েন্ট:- নারী পুরুষ সম্পর্কের
সংবেদনশীলতা ও ন্যায় বিচার প্রতিষ্ঠার ল্েয প্রধান কার্যালয় থেকে উপজেলা
কার্যালয় পর্যন্ত পিডিবিএফ এর প্রতিটি কার্যালয়ে জেন্ডার ফোকাল পয়েন্ট
কমিটি কর্মরত আছে। উক্ত কমিটি সার্বনিক বিষয়টি পর্যবেন ও সমাধান করে
থাকেন। এখানে উল্লেখ্য যে ন্যায় বিচার ও স্বাচ্ছতার প্রয়োজনে কোন অফিস
প্রধান এ কমিটির সদস্য থাকার বিধান নেই। (৪) কর্মীদের জন্য রয়েছে কল্যান
তহবিল যা থেকে তারা অসুস্থতা ও দূর্ঘটনা জনিত কারণে আর্থিক সুবিধা পেয়ে
থাকেন। (৫)বাংলাদেশের প্রতিটি উপজেলা পর্যায়ক্রমে পিডিবিএফ এর উপজেলা
দারিদ্র বিমোচন কর্মকর্তার কার্যালয় স্থাপনের মাধ্যমে আমাদের সেবা গ্রাম
পর্যায়ে পৌছে দেয়া। উপজেলা পর্যায়ে ১৫ থেকে ২০ জন সদস্যের স্বমন্নয়ে
সংশ্লিষ্ট উপজেলা দরিদ্র ও অসুবিধাগ্রস্থ জনগোষ্ঠিকে সংগঠিত করে কোনরুপ
জামানত ছাড়াই স্বল্প সুদে সাপ্তাহিক কিস্তিতে ুদ্র ঋণ, মাসিক কিস্তিতে
ুদ্র উদ্যোক্তা ঋণ এবং সৌরশক্তি স্থাপনের মাধ্যমে দেশের বিদ্যুৎ চাহিদা
পূরনে সহযোগিতা করা। (৬) পিডিবিএফ এর কর্মীদের আর একিট কাজ হল জাতীয়
উৎপাদন বৃদ্ধিতে সহায়তা করা। (৭) আমাদের ল্য হলোঃ- সুফল ভোগীদের বিভিন্ন
প্রকার সহযোগিতার মাধ্যমে উৎপাদনমুখী ও আত্মকর্মসংস্থানের ব্যবস্থা করা।
যা থেকে গ্রামের অসহায়, দু:স্থ এবং দারিদ্র পিড়িত জনগোষ্ঠির আর্থ সামাজিক
অবস্থার উন্নতি সাধন, নারী পুরুষের সমতা বিকাশ এবং প্রতিষ্ঠানের
স্বয়ম্ভরতা অর্জন করা। (৮) আমাদের অঙ্গীকারঃ- (১)পিডিবিএফ পরিবারভুক্ত।
সকল সুফলভোগীদের স্বাবলম্বী করে গড়ে তোলার জন্য পুজি উদ্বুদ্ধ করব। (২)
আর্থিকভাবে পরিবারের স্বচ্ছলতা আনার জন্য খুদ্রঋণ বিনিয়োগ করব। তাদেরকে দ
জনগোষ্ঠিতে পরিনত করব। (৩) সর্বোপরি পিডিবিএফ এর সকল ধরনের সেবা দিয়ে
সুফলভোগীদের জীবন ধারনের মান উন্নয়ন করব। (৪) প্রাতিষ্ঠানের ১০০ ভাগ
স্বয়ম্ভরতা অর্জনের মাধ্যমে দারিদ্র বিমোচন করব। (৫) পিডিবিএফ এর বিভিন্ন
কার্যক্রম তদারকী, মনিটলিং ও পরিচালনা করার দায়িত্ব যেমন: মাঠ পরিচালন
বিভাগ, অর্থ বিভাগ ও মানব সম্পদ উন্নয়ন বিভাগ। তিনটি বিভাগের (প্রশিণ),
আভ্যন্তরীন অডিট, ক্রয় ও সহায়ক সেবা আইটি এবং নীতি ও পরিকল্পনা ইত্যাদি।

নিউজটি শেয়ার করুন

posted by: কাওসার হামিদ

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

More News Of This Category
Copyright © by somoy songjog 24 | Developed by Md. Rajib