সোমবার, ২৬ অক্টোবর ২০২০, ০১:১৯ অপরাহ্ন
মুজিব বর্ষ
শিরোনাম :
চুয়াডাঙ্গার দর্শনা হিজলগাড়ী সড়কে এলোপাতাড়ি কুপিয়ে অটোভ্যান ছিনতাই মেয়েরা জন্মগত ভাবে নারী নয়- এ বি সানোয়ার হোসেন বিরামপুরে দিওড় ইউনিয়নে পূজামন্ডপ পরিদর্শন ও আর্থিক অনুদান প্রদান করেন আঃ মালেক মন্ডল চুয়াডাঙ্গা জেলায় কর্মরত জাহাতাব উদ্দীনও রুকমিয়াকে র‍্যাংক ব্যাচ পরিয়ে দিলেন এসপি জাহিদুল ইসলাম বিরামপুরে পৌর মেয়রের পূজা মন্ডপ পরিদর্শন ও আর্থিক অনুদান প্রদান জয়পুরহাট পৌর এলাকার ২৬টি পূজা মন্দিরে ৩ লাখ টাকা আর্থিক অনুদান প্রদান মেয়র মোস্তাক বয়স্ক ভাতায় স্বজনপ্রীতি ও অনিয়ম। বাগেরহাটে প্রধান শিক্ষকের বিরুদ্ধে অতিরিক্ত ফি আদায়ের অভিযোগ বিভিন্ন দপ্তরে এস এম আকবর সরদারকে পুনরায় ৫ নং ওয়ার্ডের কাউন্সিলর হিসেবে দেখতে চায় এলাকাবাসী ঝালকাঠি মন্ডপে মন্ডপে মহা নবমী পূজা অনুষ্ঠিত

রংপুরে অবহেলিত,দরিদ্র ৪’শ শিশুর পড়ালেখার ব্যয় আলোকিত নারী পেয়ারীর কাঁধে

Reporter Name
  • Update Time : রবিবার, ৯ জুন, ২০১৯
  • ১১০ Time View

আলো রহমান আখি, রংপুর ব্যুরোঃ

রংপুরে অবহেলিত,দরিদ্র ও নিম্নো আয়ের পরিবার থেকে ৪’শ শিশুর পড়ালেখার ব্যয় এখন আলোকিত নারী পেয়ারীর কাঁধে। গতকাল রোববার দুপুরে রংপুর মহানগরীতে এক চায়ের আড্ডায় এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন ফারহানা বেগম পেয়ারী। তিনি বলেন, নারী সমাজ কে এগিয়ে নিতে অবহেলিতদের প্রশিক্ষণে প্রশিক্ষিত করে গড়ে তোলা হয় কর্মসংস্থান সৃষ্টির লক্ষ্যে। এজন্য তিনি একশত নারীর প্রশিক্ষণের ব্যবস্থা করেছেন।

সেই সঙ্গে রংপুর সদর উপজেলা, পীরগাছা ও কাউনিয়া উপজেলায় রওনক শিশুবিকাশ স্কুল নামক ১৮টি বিদ্যালয় প্রতিষ্ঠা করে শিশুদের পাঠদান করছেন। পাঠদানের জন্য প্রতিটি বিদ্যালয়ে নিয়োগ দিয়েছেন একজন করে শিক্ষিকা। তার বিদ্যালয়ে প্রথম শ্রেণী থেকে ৫ম শ্রেণী পর্যন্ত সরকারের দেওয়া বিনা মূল্যে পাঠ্য বই বিতরণ করা হয়। সেই সঙ্গে বিনা মূল্যে শিক্ষার সকল উপকরণ শিক্ষার্থীদের মাঝে বিতরণ ও বেতন ছাড়াই শিক্ষার্থীদের পাঠদান করা হচ্ছে। পেয়ারী আরও বলেন, আর্থিক সংকটে একসময় তার পড়ালেখা বন্ধ হয়। এরপরেও ওই সংকট তাকে থামাতে পারে নাই। অদম্য ইচ্ছে শক্তি কাজে লাগিয়ে প্রথম বিভাগে এমএ পাশ করেন। সেই সঙ্গে ব্র্যাক শিক্ষা কর্মসূচীর কর্মজীবনের ইতি ঘটিয়ে ওই চারশত শিশুর পড়ালেখার ব্যয় কাঁধে উঠান। এখন শিশুগুলোকে নিয়ে তার আলোর পথে পথ চলা। নিজস্ব অর্থায়ণে শিশু ও নারীদের জন্য এসব করার কারণ জানতে চাইলে প্রতিদিনের সংবাদকে বলেন, নারী জাগরণের অগ্রদূত মহিয়সী নারী বেগম রোকেয়ার রংপুরের শিশু ও নারীদের উন্নয়নই আমার উন্নয়ন। যেন মৃত্যুর আগ মহুর্ত পর্যন্ত অবহেলিত নারী ও শিশুদের নিয়ে কাজ করতে পারি। এ বিষয়ে রংপুর জেলা প্রশাসক মো. এনামুল হাবীব বলেন, অবহেলিত,দরিদ্র ও নিম্নো আয়ের পরিবারের শিশুদের দায়িত্ব নিয়ে লেখাপড়া করানো ভালো কাজ। তিনি আরও বলেন, এরখম ভাবে যদি ধনাঢ্যবান ব্যক্তিরা এগিয়ে আসে তাহলে সমাজের ঝড়ে পড়া শিশুরা ভবিষ্যদে আলোর মুখ দেখবে । যে এই উদ্যোগ নিয়ে যারা শিশুদের জন্য মেধা ও শ্রম দিয়ে যাচ্ছে তাদের আমি অভিনন্দন জানাই।

নিউজটি শেয়ার করুন

posted by: সময় সংযোগ টুয়েন্টিফোর

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

More News Of This Category
Copyright © by somoy songjog 24 | Developed by Md. Rajib