বুধবার, ১২ মে ২০২১, ০৪:৫৩ পূর্বাহ্ন
মুজিব বর্ষ
শিরোনাম :
কুয়াকাটার সৈকতে আবারও মৃত ডলফিন -মাটি চাপা দিলো পৌর পরিছন্ন কর্মীরা প্রধানমন্ত্রীর দেওয়া ঈদ উপহার পেয়ে বয়োবৃদ্ধ আমজেদ ঘরামী বলেন “শেখের মাইয়া শেখ হাসিনারে আল্লাহ যেন হারা জনম ক্ষমতায় রাহে” চুরির এক দিন পরে চুরি হওয়া গাড়ীসহ চোর গ্রেফতার ওয়াজেদ মিয়ার ১২তম মৃত্যুবার্ষিকী উপলক্ষে জেলা প্রশাসনের ইফতার বিতরণ প্রধানমন্ত্রীর দেওয়া ঈদ উপহার পেল আমতলী পৌরসভার ৪৬২১টি পরিবার তারাগঞ্জে উপজেলা প্রেসক্লাবের সভা ও ইফতার অনুষ্ঠিত বাগেরহাটে কর্মহীন পেশাজীবীরা পেলেন প্রধানমন্ত্রীর উপহার তরুণ নির্মাতা সায়াদ মামুর কাব্য নির্মিত ওভিসি ‘দাফন’ এবং ‘ইফতার’ দর্শক মহলে প্রশংসিত হচ্ছে রংপুরে ১১ দিন ধরে অবরুদ্ধ ক্ষুদ্র-নৃ-গোষ্ঠি পরিবার মহাদেবপুরে বিএসডিও’র নির্বাহী পরিচালকের নির্দেশে মন্দির চত্বরে গরু জবাই: সংবাদ সম্মেলনে অভিযোগ
সিলেট বিভাগের সকল জেলায় জেলা প্রতিনিধি আবশ্যক। আগ্রহীগন যোগাযোগ করুন somoysongjog24@gmail.com

রংপুরের পীরগঞ্জে খাস জমিতে আত্রাই বিল খনন কালে আবাদি জমি দখল করার অভিযোগ

রংপুর ব্যুরোঃ
  • Update Time : বৃহস্পতিবার, ২৫ মার্চ, ২০২১
  • ৬ Time View
রংপুর জেলার পীরগঞ্জ  উপজেলার মিঠিপুর ইউনিয়নের আত্রাই বিল সরকারি(খাসজমি)
লিজকৃত কবুলিয়াত নামা মূলে  চিরস্থায়ী বন্দোবস্তো গ্রহন করে প্রায় ৪০ বছর ধরে জমি ভোগদখল আবাদ করে জীবন জীবিকা নির্বাহ করে আসছিলো গ্রামের প্রায় ৩৫টি পরিবারের কৃষক। তবে পরিত্যক্ত খাসজমি থাকলেও পুকুর খনন কালে আবাদি জমি এক্সাভেটর (ভেকু) দিয়ে খনন করে দখল করছে বলে অভিযোগ করেন সুবিধাভোগী মানুষ ।
 এ বিষয়ে পীরগঞ্জ  উপজেলা মৎস্য  কর্মকর্তা কৃষিবিদ আমিনুল ইসলাম সাথে কথা হলে তিনি বলেন,সরকারের খাসকৃত জমিতে জলাশয় সংস্কার  মাধ্যমে  মৎস্য উৎপাদন বৃদ্ধি প্রকল্প বাবদ ১৯ লাখ ৬৭ হাজার টাকা বরাদ্দ পাওয়া গেছে। বর্তমানে বরাদ্দের কাজ চলছে সারে ৭ বিঘা-২.৪৭ একর। পরবর্তীতে খাস জমি  আরও খনন করা হবে। এখানে গরীব  মৎস্যজীবি লোকেরা জীবিকা নির্বাহ করবে বলে জানান ।
আত্রাই বিল খনন কালে গত ২৩ ফেব্রয়ারী ২০২১ ইং পীরগঞ্জে আর,ডি মৎস্য প্রকল্পের ঠিকাদার হঠাৎ করে আত্রাই বিল আবাদি জমি যার দাগ নম্বর নুতন ৩০৫৯,৩০৫৩, ৩০২০,৩০২২ সহ একের পর এক কোনো এক অজ্ঞাত ও রহস্যজনক কারনে  পেশিশক্তিতে দখল করে পুকুর খনন করছে বলে মামলার অভিযোগ সূত্রে জানা যায়।
পরে প্রতিকার চেয়ে ২৪ ফেব্রয়ারী বিভিন্ন দপ্তরে অভিযোগ করেন সুবিধাভোগী মানুষের পক্ষে শাহীন মিয়া,
পরবর্তীতে বিরোধপূর্ণ জমি-যার জে,এল নং-২২৯ সিএস খতিয়ান নং-৫১৭ সাবেক দাগ নং-১৭২৬ যাহার বুজরত খতিয়ান নং- ১৭৭২ ডি,পি খতিয়ান নং-১৯২ আর এস খতিয়ান নং- ১৯২ নুতন দাগ নং-৩০৫৭,জমি ১.১৮ একরের মধ্যে ১.০০ একর “।
মামলার বাদীর অভিযোগ,
প্রতিপক্ষ বিভিন্ন কৌশলে তাদের  কবুলিয়াত ও পত্তন কৃত জমি দখলের চেষ্টা অব্যাহত রাখলে কোন উপায় না পেয়ে আবেদ আলী আদালতে হাজির হয়ে প্রতিপক্ষ সাইফুল ইসলামসহ ১১ জনের নাম উল্লেখ করে ( ১ মার্চ ২০২১) অতিরিক্ত জেলা ম্যাজিস্ট্রেট আদালতে ফৌজদারী কার্যবিধি ১৪৪ ধারায়/মিছ পিটিশন ২১৮/২১ যাহার স্মারক নং- ২৮৬/১ (২) মামলা সংক্রান্ত  জমির উপর নিষেধাজ্ঞা জারির আবেদন করেন।
আবেদনের প্রেক্ষিতে আদালত ১৮ মে মধ্যে সংশ্লিষ্ট ULAO তদন্ত প্রতিবেদন নির্দেশ দেন,সেই সাথে শান্তি শৃঙ্খলা রক্ষার জন্য পীরগঞ্জ থানার ও,সি কেও নির্দেশ প্রদান করেন।
ভোগদখলকৃত জমি জে,এল নং-২২৯ যাহার বুজরত খতিয়ান নং-১৮৫৮ ডি,পি খতিয়ান নং-১০৩৩ আর,এস খতিয়ান নং-১০৩৩ সাবেক দাগ নং-১৭২৬ নুতন দাগ নং-৩০৫৯,জমি ৩.১০ একরের মধ্যে ১.০০ একর তন্মধ্যে. ৩০ একর। আবারো আরেক  ব্যক্তি মোঃ মমদেল হোসেন আদালতে হাজির হয়ে প্রতিপক্ষ সাইফুল ইসলামসহ ১২ জনের নাম উল্লেখ করে (১০ মার্চ ২০২১) ১৪৪ ধারায় মিছ পিটিশন নং ১৯৪/২১,স্মারক নং- ৩২৬/১(২) মামলা সংক্রান্ত নিষেধাজ্ঞা জারির আবেদন করেন।
আবেদনের প্রেক্ষিতে আদালত ১ জুন তারিখের মধ্যে সংশ্লিষ্ট  ULAO তদন্ত প্রতিবেদনের জন্য  নির্দেশ প্রদান করে আদালত। সুবিধাভোগী তারা মিয়া ১২ জনের নাম উল্লেখ করে বিজ্ঞ জুডিসিয়াল আদালতে আরও একটি মামলা করেন।
আদালতের মিছ পিটিশন ও থানার অভিযোগ সূত্রে প্রকাশ, দু-দফা  প্রাথমিক ভাবে প্রতিবেদনের দেয়ার আগেই তা কর্নপাত না করে ওই আত্রাই বিল খাস অংশ খননের পাশাপাশি সুবিধাভোগীদের কবুলিয়াত ও পত্তন নেয়া ইরি বরো ধান লাগানো আবাদি জমি  একটি প্রভাবশালী চক্র দখলে নিচ্ছে বলে অভিযোগ করেন ভুক্তভোগীরা।
এদিকে প্রতিপক্ষ সাইফুল ইসলাম সাথে যোগাযোগ করার চেষ্টা করলেও তাকে পাওয়া যায়নি
বাদীর ছেলে আইয়ুব আলী ভুক্তভোগী শাহীন মিয়া জানান, ঘটনার পর একাধিক বার পুলিশের সহযোগিতা চেয়েও কোন প্রতিকার পাননি তারা।
তবে  মামলার তদন্ত  কর্মকর্তা এস আই ইসমাইল হোসেন বলেন,বাদি ও বিবাদীকে মিমাংসা জন্য থানায় ডেকে কথা বলা হয়েছে। তবে কেউ শান্তি শৃঙ্খলার বেঘাত ঘটানোর চেষ্টা করলে আইনের আওতায় আনা হবে।
স্থানীয়রা বলছে বিল খনন নিয়ে  দুইপক্ষের মধ্যে উত্তেজনা বিরাজমান। এটাকে কেন্দ্র করে যে কোন সময় রক্তক্ষয়ী সংঘর্ষের ঘটনা ঘটতে পারে। তাই আদালতের মামলা নিষ্পত্তি না হওয়া পর্যন্ত পুলিশ প্রশাসনের জরুরী হস্তক্ষেপ কামনা করছেন এলাকাবাসী।

নিউজটি শেয়ার করুন

posted by: মোঃ জহিরুল ইসলাম

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

More News Of This Category
Copyright © by somoy songjog 24 | Developed by Md. Rajib