শুক্রবার, ০৭ মে ২০২১, ০৭:০৮ পূর্বাহ্ন
মুজিব বর্ষ
শিরোনাম :
নীলফামারীতে ভোকেশনাল ট্রেনিং কার্যক্রম বাস্তবায়নে বর্ধিত সভা অনুষ্ঠিত হিলিতে ৪৫০পিছ ইয়াবাসহ আটক ২ এখনও থেমে থেমে জ্বলে উঠছে বিভিন্ন জায়গা সুন্দরবনের আগুন, পুড়েছে ১০ একর বনভূমি পারিবারিক কবর স্থানে চির নিদ্রায় শায়িত হলেন উপজেলা চেয়ারম্যান মাহফুজুর রহমান কবি নজরুল বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্রলীগ নেতা কায়েসের ঈদ উপহার নওগাঁয় ব্যাংক থেকে টাকা উত্তোলন করে নিয়ে যাবার সময় চুরি করে নেওয়ার এক ঘন্টার মধ্যে পাঁচ সদস্য গ্রেফতারঃ চুরি যাওয়া পঞ্চাশ হাজার টাকা উদ্ধার জীবননগর শিয়ালমারী পশুহাটে ভ্রাম্যমাণ আদালতের অভিযান পরিচালনা চুয়াডাঙ্গা পুলিশ লাইন্স ড্রিলশেডে মাসিক কল্যাণ সভা ও ঈদ উপহার বিতরণ আমতলীর কান্তার খালের উপর ঝুকিপূর্ন লোহার সেতু জনগনের চলাচলে ভোগান্তি ঈদুল ফিতর উপলক্ষে আমতলীর ৩৫ হাজার ৫৮৬ টি পরিবার পাচ্ছে আর্থিক সহায়তা
সিলেট বিভাগের সকল জেলায় জেলা প্রতিনিধি আবশ্যক। আগ্রহীগন যোগাযোগ করুন somoysongjog24@gmail.com

মায়ের স্বপ্ন পূরণ করলেন হায়দার আলী

আলো রহমান আখি, রংপুর ব্যুরোঃ
  • Update Time : সোমবার, ১৯ এপ্রিল, ২০২১
  • ৩১ Time View
রংপুরের কাউনিয়া উপজেলার কুর্শা ইউনিয়নের বিষ্ণুপুর গ্রামে   মোঃ হায়দার আলী শিশু সদন ও এতিমখানা মাদ্রাসার ছাদ  ঢালাই কাজ সম্পন্ন হয়েছে।
জানা গেছে, হায়দার আলী যখন দ্বিতীয় শ্রেণিতে লেখা  পডা করে  তখন তার মা মারা যায়। সে সময় থেকে তার স্বপ্ন ছিল একটি এতিমখানা  মাদ্রাসার ও বৃদ্ধাশ্রম করার।
হায়দার আলী বলেন, আমি যখন দ্বিতীয়  শ্রেণীতে লেখাপড়া করি তখন আমার মা মারা যায় ।  আমার মা মারা যাবার সময় আমার নিয়ত ছিল আমি একটি এতিমখানা করব। তিনি আরো বলেন,
আমি এস এস সি পাস করার পরেই একটি সরকারি চাকরি হয়।  চাকরি শেষ হওয়ার পর  নিজের উদ্যোগে মায়ের দেয়া কথা রক্ষা করতে গিয়ে সেই এটিমখানা টি- ছাদ ঢালাই এর কাজ সম্পন্ন করেছি
এখানে ৫০ জন ছাত্র লেখাপড়া করতে পারবে। তাছাড়াও এখানে আমি একটি বৃদ্ধাশ্রম ও শিশু হাসপাতাল নির্মাণ করার প্রতিশ্রুতি নিয়েছি।
সকলের সহযোগিতা পেলে আমি এইসব কাজ সম্পন্ন করতে পারবো। আল্লাহ যেন আমাকে সেটি করার তৌফিক দান করেন।
আজ সোমবার সকালে ওই এলাকায় সরেজমিনে গিয়ে জানা যায়, বিষ্ণুপুর গ্রামে নেই  কোনো এটিমখানা মাদ্রাসার। সেটি বাস্তবায়ন  করতে  হায়দার আলী নামে এক ব্যক্তি তার ছোট বেলায় মা মরে যাওয়ার পর এই প্রতিশ্রুতি দিয়েছিল এলাকাবাসীর কাছে।  তারই ধারাবাহিকতায় আজকে এটি বাস্তবায়ন করতে  ছাদ ঢালাই এর কাজ সম্পন্ন করা হয়েছে।
স্থানীয়রা জানায়, এই গ্রামে একটি এতিমখানা  মাদ্রাসা হওয়ার ফলে এখানকার ঝড়ে পড়া শিশুরা লেখাপড়া করতে পারবে পাশাপাশি যাদের  আর্থিক সংকট তারাও এখানে লেখাপড়া করতে পারবে।
আমরা জানি এই এলাকা অবহেলিত এখানে কোন মাদ্রাসা মসজিদ ও হাসপাতাল নেই। হায়দার ভাই যদি এখানে হাসপাতাল বৃদ্ধাশ্রম করে তাহলে বৃদ্ধাদের যে বৃদ্ধ বয়সে বৃদ্ধাশ্রম দরকার  সেই
 স্বপ্ন পূরণ হবে।

নিউজটি শেয়ার করুন

posted by: সময় সংযোগ টুয়েন্টিফোর

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

More News Of This Category
Copyright © by somoy songjog 24 | Developed by Md. Rajib