বৃহস্পতিবার, ২২ অক্টোবর ২০২০, ১১:৫১ অপরাহ্ন
মুজিব বর্ষ
শিরোনাম :
অতিবর্ষণে আমতলীর জন-জীবন বিপর্যস্থ হয়ে পড়েছে তলিয়ে গেছে রোপা আমন ধানের তেসহ মাছের ঘের, পুকুর ও পানের বরজ কলারোয়ায় গ্রীষ্মকালীন টমেটো ও মাঠ দিবসে সংস্কৃতি প্রতিমন্ত্রী। রংপুরে নারী সুরক্ষা বাস্তবায়ন পরিষদের ত্রি-বার্ষিক সম্মেলন অনুষ্ঠিত নারী নির্যাত‌নের বিরু‌দ্ধে জনস‌চেতনতা বৃদ্ধিতে ফেস্টুন ও বেলুন উড়িয়ে কর্মসূচী‌ পালিত কচুয়ায় নারী জনপ্রতিনিধিদের পরিকল্পনা ও বাজেট বিষয়ক প্রশিক্ষণ বাগেরহাটে নিরাপদ সড়ক দিবস পালিত বাগেরহাটে ভোর থেকে বিরামহীন বৃষ্টি, বিপর্যস্ত জন জীবন নোয়াখালী সুবর্ণচরে ৫ টুকরো করে হত্যার রহস্য উদঘাটন,ছেলেসহ আটক ৫ আজ থেকে টানা ৬ দিন বন্ধ থাকছে হিলি স্থলবন্দর দিয়ে আমদানি-রপ্তানি বন্ধ মাধবপুরে ভারতীয় মদ উদ্ধার

মাহাফুজুর রহমানের সাথে একদিন

Reporter Name
  • Update Time : বুধবার, ১৮ সেপ্টেম্বর, ২০১৯
  • ২২৭ Time View

আসমাউল মুত্তাকিন (বিশ্ববিদ্যালয় প্রতিনিধি)

শুক্রবার ছুটির দিন।ছুটির দিন মানে কারো কাছে আনন্দ, ঘোরাঘুরি,বিনোদন আরো কত কি।আবার কারো কাছে নিজের পড়ালেখার পাশাপাশি বাড়তি আয়ের সুযোগের এর দিন হল এটি।এরকম একটি ছুটির দিন হলো ১৩ই সেপ্টেম্বর শুক্রবার।ছুটির দিনে ঢাকার বিনোদন কেন্দ্রেগুলোতে ভ্রমন পিপাসু মানুষদের ভিড় লেগে থাকে।শুধু বিনোদন কেন্দ্রেগুলোতে নয় পাশাপাশি সংসদভবন সহ বেশকিছু গুরুত্বপূর্ণ স্থানেগুলোতে মানুষের আনাগোনা একটু বেশি হয়।এরকম ছুটির দিনে সংসদের ভবনের দিকে যাচ্ছিলাম। হঠাৎ দেখা হলো এক প্রতিভাবান শিল্পী সাথে।কলম- খাতা দিয়ে কি যে একটা ছবি আকাঁ আঁকি করতেছেন তিনি।তার একটি পোস্টারে লেখা রয়েছে এরকম “আপনার ছবি আঁকি নিন চেহারা সম্পূর্ণ মিলিয়ে দেওয়া হবে।সরাসরি ছবি থেকে ছবি আঁকিয়ে দেয়া হয়।”এরকম পোস্ট দেখে আমার চোখটি আটঁকিয়ে গেল সেখানে।অধীর আগ্রহে তার সম্পর্কে জানাতে ইচ্ছা হলো আমার। প্রতিভাবান শিল্পীর নাম মাহাফুজুর রহমান।তিনি ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ভাস্কর্য বিভাগে অধ্যয়ন করতেছেন।চেহারা দেখে ছবি আঁকতে পারেন তিনি।ছোটবেলা থেকে চিত্রাংকনের প্রতি তার এক অনন্য প্রতিভার সৃষ্টি হয়। তার বয়স যখন পাঁচ বছর,তখন থেকে তার চিত্র অংকন এর প্রতি এক অদম্য আগ্রহ সৃষ্টি। ফরিদপুর জিলা স্কুলে পড়েন তিনি।ক্লাসের এর ফাঁকে ফাঁকে কাঠ পেন্সিল দিয়ে আঁকা আঁকি করতেন বিভিন্ন মানুষের ছবি সহ প্রাকৃতিক দৃশ্য আর কত কি।যাই সামনে পেতেন তাই আঁকতেন।ফরিদপুরের স্থানীয় একটি প্রদর্শনীতে তার ১০টি ছবি সিলেক্টেড হয়েছিল। প্রদর্শনী শেষে তিনি ফরিদপুর শিশু একাডেমিক পুরষ্কার পেয়েছিলেন। রাজেন্দ্র সরকারি কলেজে অধ্যয়নের সময় তিনি ফেবার কাস্টেল পুরষ্কার পান। বর্তমানে তিনি ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ক্লাশের ফাঁকে ফাঁকে বিভিন্ন প্রদশর্নীতে এবং বিভিন্ন উৎসবে ছবি আঁকেন ও আলপনা আঁকেন। মাহাফুজুর রহমানের চিত্র অংকন এর ভবিষ্যৎ পরিকল্পনা সম্পর্কে জানতে চাইলে তিনি বলেন,”আমি শুধু ভালোলাগা থেকে এই ছবি আঁকি কোনো রকম প্রশিক্ষণ ছাড়াই।তবে আমার ইচ্ছা আছে একদিন আমার ছবি দেশের মানুষের মধ্যে সীমাবদ্ধ না থেকে বাইরের দেশও প্রদর্শনীতে প্রদর্শিত হবে।আমার ছবি দেখে যেন মানুষ আবারও বাংলাদেশকে খুজে পায়। সরকারিভাবে অথবা ব্যক্তিগতভাবে কোনো সহযোগিতা পেলে অনেক দূর এগিয়ে যেতে পারবে বলে আশাবাদী হন তিনি।”

নিউজটি শেয়ার করুন

posted by: সময় সংযোগ টুয়েন্টিফোর

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

More News Of This Category
Copyright © by somoy songjog 24 | Developed by Md. Rajib