মঙ্গলবার, ০৯ মার্চ ২০২১, ০৭:২৬ পূর্বাহ্ন
মুজিব বর্ষ
শিরোনাম :
বানারীপাড়া উপজেলা ছাত্রলীগের সাবেক নেতা এস এম শামীম ব্যাপারী’র ইন্তেকাল বানারীপাড়া চাখার ইউনিয়নে নৌকার মাঝি হতে চায় আওয়ামী লীগ নেতা নাসির উদ্দিন যথাযথ মর্যাদায় লক্ষ্মীপুরে আন্তর্জাতিক নারীকে দিবস পালন করেছে জেলা প্রশাসন দিনাজপুরে চাঁকা বাস্ট হয়ে হেলপারের মৃত‍্যু তালতলীতে ৫ম শ্রেনীর শিশুকে ধর্ষণ চেষ্টায় কলেজের দপ্তরীর বিরুদ্ধে মামলা আলমডাঙ্গায় ভ্রাম্যমাণ অভিযানে ২ টি প্রতিষ্ঠানে ২৯ হাজার টাকা জরিমানা বানারীপাড়া সলিয়াবাকপুর ইউনিয়নে আওয়ামী লীগের দলীয় মনোনয়ন প্রত্যাশী আক্তার মোল্লা বাগেরহাটের বাদোখালী চাচা-ভাতিজার উপর হামলার ঘটনায় থানায় মামলা আন্তর্জাতিক নারী দিবস উপলক্ষে বাগেরহাটে আলোচনা সভা চুয়াডাঙ্গার দামুড়হুদায় আন্তর্জাতিক নারী দিবস উপলক্ষে আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত

ভালুকায় সরকারি খাল বন্ধ করে রাস্তা নির্মাণ দূর্ভোগে তিনশত কৃষি পরিবার

লিমা আক্তার, ময়মনসিংহ প্রতিনিধিঃ
  • Update Time : বুধবার, ৩ ফেব্রুয়ারী, ২০২১
  • ১৪৬ Time View
ময়মনসিংহের ভালুকায় নিঝুরী গ্রামে অবস্থিত বাঘাডুরা নামক সরকারি খালটি বন্ধ করে দেওয়া হয়েছে। উপজেলার বরাইদ গ্রামের মৃত: হাছেন আলী সরকারের ছেলে আকতার হোসেন সরকার জনসেবার নামে মাটি ফেলে খালটি বন্ধ করে দিয়েছেন বলে স্থানীয়রা অভিযোগ করেছেন । এছাড়াও এই খালের  আশেপাশের  কোম্পানির বর্জ্য ফেলে পানি সম্পূর্ণ দূষিত করে ফেলেছে। ফলে ওই খালের পানি ব্যবহারের অনুপযোগী হওয়ায় দখলদাররা খাল দখল করার সুযোগ পেয়ে খালের দু’পাশ ভরাট করে খাল সংকুচিত করে ফেলছে। এলাকাবাসী
আরো জানান ওই খালটির ঠিক ৫০ গজ দূরেই কিছুদিন আগে দু’কাঠা জমি ক্রয় করেছেন আক্তার হোসেন সরকার। সেজন্য যাতায়াত সুবিধার লক্ষ্যে মাটি ফেলে খালটি বন্ধ করে রাস্তা তৈরি করেছেন। এতে যেমন বর্ষাকালে খালটিতে জলাবদ্ধতার সৃষ্টি হবে তেমনি শত শত একর জমির কৃষি কাজ ব্যহত হচ্ছে।কৃষিমুখী পরিবারগুলোর অর্থাৎ কৃষিই যেসব পরিবারের প্রধান উপজীব্য বিষয় তাদের চরম দুর্ভোগে পরতে হচ্ছে। আক্তার হোসেন নিজস্ব স্বার্থ
চরিতার্থ করার জন্য জনগণের যাতায়াতের জন্য রাস্তা করে দেওয়ার নামে কোন ব্রিজ বা কালভার্ট ছাড়াই এবং পানি প্রবাহের কোন ব্যবস্থা গ্রহণ না করেই মাটি ফেলে খালের দুপাশের অংশ ভরাট করেছেন।যা ২০০০ সালে প্রণীত ‘প্রাকৃতিক জলাধার সংরক্ষণ আইন’ বিরোধী কাজ ।আইন অনুযায়ী নদী, খাল, বিল, দিঘি, ঝরনা বা জলাশয়, বন্যাপ্রবাহ এলাকা এবং বৃষ্টির পানি ধারণ করে, এমন কোনো ভূমির শ্রেণি পরিবর্তন করা যাবে না। অর্থাৎ সেগুলো ভরাট করা যাবে না। আইন অনুযায়ী এটি শাস্তিযোগ্য অপরাধ। কিন্তু এ আইনের যথাযথ প্রয়োগ হয় না।
বাংলাদেশের বাস্তবতায় খাল-নদী রক্ষা করার কেউ নেই। যে যার ক্ষমতা অনুযায়ী খাল ও নদী ব্যবহার করছে। যাদের প্রভাব-প্রতিপত্তি রয়েছে, তারা নদী ও খালের ওপর ঝাঁপিয়ে পড়ছে। পরিবেশ-প্রতিবেশ কিংবা সমাজের দশজনের ক্ষতির পরোয়া করছে না। তবে আশার কথা হচ্ছে, বিভিন্ন পরিবেশবাদী সংগঠন ও সচেতন নাগরিকদের মানববন্ধনসহ বিভিন্ন আন্দোলন কর্মসূচির ফলে অনেক খাল ও নদী দখলমুক্ত হয়েছে।
সরেজমিন গিয়ে ও স্থানীয়দের সাথে কথা বলে জানা যায়, ওই খালটির দু’পাশে তিনশতাধিক কৃষকের বোরো ও আমনসহ বিভিন্ন ধরনের কৃষি আবাদী ফসিলের জমি রয়েছে। খালটি বন্ধ করে দেয়া হলে ফসিলি জমিতে পানি সেচ এবং উজান এলাকায় জলাবদ্ধতা সৃষ্টি হওয়ার আশঙ্কা রয়েছে। তাছাড়া তিন শতাধিক কৃষকের জমিতে জলাবদ্ধতা সৃষ্টি হয়ে ক্ষতির কারণ হয়ে দাঁড়াবে। এই দূরাবস্থা থেকে রক্ষা পেতে দ্রুত বিষয়টি তদারকি করে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করতে প্রশাসনের সহযোগিতার দাবি জানিয়েছেন সচেতন মহল।
মেদুয়ারী ইউনিয়ন পরিষদ সম্ভাব্য চেয়ারম্যান পদপ্রার্থী আক্তার হোসেন সরকারকে এ বিষয়ে মোবাইল ফোনে জানতে চাইলে মোবাইল রিসিভ না করা বক্তব্য নেওয়া সম্ভব হয়নি।
এ ব্যাপারে উপজেলা চেয়ারম্যান অাবুল কালাম আজাদ সাহেবের মোবাইলে বারবারা ফোন দেওয়ার পরে-ও রিসিভ না করায় বক্তব্য নেওয়া সম্ভব হয়নি।
এ ব্যাপারে ৬ নং ওয়ার্ড ইউপি সদস্য মোঃ সিরাজুল ইসলাম বলেন, আমি যতদূর জানি জনগণের স্বার্থেই রাস্তাটি করা হচ্ছে। তবে যদি খালে কোন কালবাট না দিয়ে বাদ বাদে তাহলে কৃষকের ক্ষতি হবে।
এ বিষয়ে উপজেলা নির্বাহী অফিসার সালমা খাতুন জানান,খালে বাঁধ বাধার কাজ চলমান থাকে দ্রুত আইনে ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

নিউজটি শেয়ার করুন

posted by: মোঃ জহিরুল ইসলাম

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

More News Of This Category
Copyright © by somoy songjog 24 | Developed by Md. Rajib