শুক্রবার, ২৫ জুন ২০২১, ০৬:৩৭ পূর্বাহ্ন
মুজিব বর্ষ
শিরোনাম :
আমতলীতে আয়রণ ব্রিজ ভেঙ্গে খালে ৭ গ্রামের ১৫ হাজার মানুষের ভোগান্তি কলারোয়া এনজিও সংস্থা উত্তরণের আয়োজনে সংবাদ সম্মেলন অনুষ্ঠিত নীলফামারীর কিশোরগঞ্জে কাবিটার বরাদ্ধ দিয়ে শহরে রুপান্তরিত হচ্ছে গ্রাম স্বাস্থ্যবিধি নিশ্চিতকরণে রংপুরে মোবাইল কোর্ট ‌ত্রিশাল পৌরসভার বা‌জেট ঘোষণা আমতলীতে হ্যাট্রিক পূর্ণ করলেন চাওড়া ইউপি চেয়ারম্যান বাদল খাঁন সড়কবাতিতে পুরো নগরীতে ফিরেছে প্রাণ-রসিক মেয়র নীলফামারী পৌর সভার ৪৬ কোটি টাকার বাজেট ঘোষণা কলারোয়ার ধানদিয়া কমিউনিটি ক্লিনিকে ব্র্যাকের উদ্যোগে মাস্ক বিতরণ ও আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত করোনায় স্কুল বন্ধ, অফিস কক্ষেই অনৈতিক কর্মকান্ডে লিপ্ত শিক্ষক-শিক্ষিকা: প্রতিবাদ করায় হয়রানিমূলক মামলা
সিলেট বিভাগের সকল জেলায় জেলা প্রতিনিধি আবশ্যক। আগ্রহীগন যোগাযোগ করুন somoysongjog24@gmail.com

বেনাপোল বন্দর দিয়ে পেঁয়াজ আমদানি শুরু

আহম্মদ আলী শাহিন, যশোর প্রতিনিধি
  • Update Time : বৃহস্পতিবার, ১০ জুন, ২০২১
  • ১৩ Time View

দুই মাস বন্ধ থাকার পর বেনাপোল স্থলবন্দর দিয়ে পুনরায় ভারত থেকে পেঁয়াজ আমদানি শুরু হয়েছে। গত ২ দিনে বেনাপোল পেট্রাপোল বন্দর দিয়ে ৫৮ মেট্রিক টন পেঁয়াজ আমদানি হয়েছে। ভারত সরকার সেদেশে পেঁয়াজ উৎপাদন সংকট দেখিয়ে ও দফায় দফায় মূল্য বাড়িয়ে পেঁয়াজ রফতানি বন্ধ করে দেয়। ফলে মারাত্মকভাবে ক্ষতিগ্রস্ত হয় আমদানিকারকরা। পেঁয়াজ আমদানির খবরে স্থানীয় বাজারে পেঁয়াজের দর কেজি প্রতি কমেছে ১০ টাকা। আমদানিকৃত ভারতীয় পেঁয়াজ পাইকারি বাজারে বিক্রি হচ্ছে কেজি প্রতি ৩৫ থেকে ৩৬ টাকার মধ্যে আর খুচরা বাজারে ৩৮ থেকে ৪০ টাকা।

বেনাপোল কাস্টমসের ডেপুটি কমিশনার মোস্তাফিজুর রহমান জানান, গত ২ দিনে ভারত থেকে ৫৮ মেট্রিক টন পেঁয়াজ আমদানি হয়েছে। পণ্য ছাড় করাতে ব্যবসায়ীদের আমদানি মূল্যের ওপর শতকরা ৫ ভাগ হারে শুল্ক পরিশোধ করতে হচ্ছে। আমদানি করা পেঁয়াজ ব্যবসায়ীরা যাতে দ্রুত খালাস করতে পারেন তার জন্য সংশ্লিষ্ট সবাইকে নির্দেশনা দেওয়া হয়েছে।

বেনাপোল বন্দরের আমদানি-রফতানি সমিতির সহসভাপতি আমিনুল হক জানান, পেঁয়াজ আমদানির খবরে স্থানীয় বাজারে পেঁয়াজের দর কেজি প্রতি কমেছে ১০ টাকা। গত তিন দিন আগে বাজারে পেঁয়াজের প্রতি কেজি মূল্য ছিল ৫৫ থেকে ৬০ টাকা। আমদানিকৃত পেঁয়াজের সরবরাহ বাড়লে বাজার মূল্য আরও কমে আসবে জানান তিনি। তিনি আরও জানান, যখন ভারতীয় পেঁয়াজ আমদানি বন্ধ হয় তখন সুবিধাবাদী ব্যবসায়ী সিন্ডিকেটের সদস্যদের কারসাজিতে পেঁয়াজের মূল্য আকাশ ছোঁয়া বেড়ে যায়। এতে সাধারণ মানুষ নিত্যপ্রয়োজনীয় এই পেঁয়াজ কিনতে বেকায়দায় পড়েন। এক্ষেত্রে সরকার যদি দেশে আমদানিকারকদের তালিকা ও তারা কি পরিমাণ পেঁয়াজ আমদানি ও বিক্রি করছেন তা তদারকির প্রতি জোর দেয় তাহলে সিন্ডিকেটের দৌরাত্ম্য কিছুটা হলেও কমবে মলে মত প্রকাশ করেন তিনি।

বাংলাদেশের সবচেয়ে বড় পেঁয়াজ আমদানিকারক খুলনার হামিদ এন্টারপ্রাইজের প্রতিনিধি জনি ইসলাম জানান, আমদানিকৃত পেঁয়াজ তারা স্থানীয় ব্যবসায়ীদের কাছে প্রতি কেজি ৩৫ থেকে ৩৬ টাকার মধ্যে বিক্রি করছেন।

বেনাপোল বন্দরের উপ-পরিচালক (ট্রাফিক) মামুন কবীর তরফদার বলেন, আমদানি করা পেঁয়াজ ব্যবসায়ীরা যাতে দ্রুত খালাস করতে পারেন তার জন্য সংশ্লিষ্ট সবাইকে নির্দেশনা দেওয়া হয়েছে।

নিউজটি শেয়ার করুন

posted by: সময় সংযোগ টুয়েন্টিফোর

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

More News Of This Category
Copyright © by somoy songjog 24 | Developed by Md. Rajib