শনিবার, ৩১ অক্টোবর ২০২০, ১২:৩৭ অপরাহ্ন
মুজিব বর্ষ
শিরোনাম :
সুমন স্মৃতি গোল্ডকাপ ফুটবল টুর্নামেন্ট এর ফাইনাল খেলা অনুষ্ঠিত ঝালকাঠিতে ঈদে মিলাদুন্নবীর দোয়া-মোনাজাতে ১৪ দলের মুখপাত্র আমির হোসেন আমু দর্শনা থানা পুলিশের বিশেষ অভিযানে পাখি ভ্যানসহ গ্রেফতার ৩ জবির স্বপ্নীল বাসের চালক জসিম আর নেই যমুনার চরাঞ্চলে কৃষকরা বাদাম চাষে ব্যস্ত বিরামপুরে পৌর আওয়ামীলীগের ৮নং ওয়ার্ড কমিটির বর্ধিত আলোচনা সভা বাগেরহাটে শিক্ষার্থীদের দুই দিন ব্যাপি আত্মরক্ষার কৌশল বিষয়ক প্রশিক্ষন বাগেরহাটে জাহানারা কাঞ্চনের মৃত্যু বার্ষিকী উপলক্ষে আলোচনা সভা ও দোয়া মাহফিল বিশ্ব নবীকে নিয়ে ব্যঙ্গ করার প্রতিবাদে মিছিল ও সমাবেশ অনুষ্ঠিত ফ্রান্সে মহানবীকে নিয়ে ব্যঙ্গচিত্র প্রর্দশনের প্রতিবাদে বিক্ষোভ মিছিল ও প্রতিবাদ সভা অনুষ্ঠিত

বিদ্রোহীদের দাপটে আবারও হেরে গেলেন বরিস জনসন

Reporter Name
  • Update Time : বৃহস্পতিবার, ৫ সেপ্টেম্বর, ২০১৯
  • ১৪৪ Time View

আন্তর্জাতিক ডেস্কঃ

ব্রেক্সিট পরিকল্পনায় ব্যর্থ হয়ে আগাম নির্বাচনের হুমকি কর্যকর করতে প্রস্তাব এনেছিলেন ব্রিটিশ প্রধানমন্ত্রী বরিস জনসন। এটাতেও তিনি হেরে গেছেন হাসউ অব কমন্সে এমপিদের ভোটাভুটিতে। যদিও ব্রেক্সিট প্রশ্নে নিজেদের দলের বিরুদ্ধে ভোট দিলে বহিষ্কার করে দেওয়ার হুমকিটি কার্যকরে চিফ হুইপের প্রক্রিয়া চলছে।

আন্তর্জাতিক সংবাদমাধ্যম বলছে, জনসনের আগাম নির্বাচনের প্রস্তাবে ভোট পড়েছে ৩৫৪টি। এর মধ্যে পক্ষে পড়ে ২৯৮ এমপির। বিপক্ষে ৫৬টি। কিন্তু প্রস্তাবটি পাস হওয়ার জন্য ভোট দরকার ছিল কমন্সের ৬৫০ সদস্যের মধ্যে দুই-তৃতীয়াংশ। অর্থাৎ আরও ১৩৬টি ভোট পক্ষে থাকলে হতো।

এছাড়া মঙ্গলবার থেকে শুরু হওয়া এই পার্লামেন্ট অধিবেশনের দ্বিতীয় দিনে নির্বাচন প্রস্তাব ইস্যুতে ভোট দেওয়া থেকে বিরত ছিলেন প্রধান বিরোধী দল লোবার পার্টিসহ বেশ কয়েকটি পার্টির বেশিরভাগ এমপি।

দ্বিতীয়বারের মতো হেরে গিয়ে বরিস জনসন বলেন, প্রস্তাবটি ছিল গুরুত্বপূর্ণ আলোচনার। একইসঙ্গে এখন এগিয়ে যাওয়ার একমাত্র উপায় ছিল এই নির্বাচন।

কিন্তু লেবার পার্টির নেতা জেরেমি করবিন প্রধানমন্ত্রীর বিরুদ্ধে ‘ ব্রেক্সিট নিয়ে বিতর্কিত একটি খেলায় মেতেছেন’ বলে অভিযোগ এনে বলেছেন, চুক্তিহীন ব্রেক্সিটের (নো ডিল ব্রেক্সিট) বিরুদ্ধে একটি প্রস্তাব আসছে। এই ব্রেক্সিটের দিকে না এগোনোর প্রস্তাবটি পাস হলেই পরবর্তী নির্বাচনে যাওয়া যেতে পারে। এর আগে নয়।

এদিকে, ব্রেক্সিট ইস্যুতে প্রধানমন্ত্রী বরিস জনসনের চিন্তাধারার সমালোচনা করছে বিরোধী দল এসএনপি এবং লিবারেল ডেমোক্রেটস। দল দু’টি বলছে, যুক্তরাজ্য কোনো চুক্তি ছাড়াই ইউরোপীয় ইউনিয়ন (ইইউ) থেকে বেরিয়ে যাবে (ব্রেক্সিট)- এটা নিশ্চিত ‘বিতর্কিত’ সিদ্ধান্ত।

কিন্তু জনসনের সমর্থকরা বিরোধীদের দুই বছরের জন্য সাধারণ নির্বাচনের আহ্বান জানিয়ে ইতিবাচক সাড়া দেন।

ব্রেক্সিটের কারণে সাময়িক স্থগিত থাকার পর মঙ্গলবার আবার শুরু হয় ব্রিটিশ পার্লামেন্ট অধিবেশন। বেক্সিট কর্মসূচির নিয়ন্ত্রণ রাখতে ক্ষমতাসীন দলের ২১ এমপি বিরোধী দলের সঙ্গে গিয়ে যোগ দেয়। এতে মঙ্গলবার কমন্সে ৩২৮ আর ৩০১ ভোটের ব্যবধানে হেরে যায় সরকার।

আগামী ৩১ অক্টোবর ইউরোপীয় ইউনিয়নের (ইইউ) সঙ্গে যুক্তরাজ্যের বিচ্ছেদ বা ব্রেক্সিট কার্যকর হওয়ার দিনক্ষণ নির্ধারিত রয়েছে। যা নিয়ে এখন ব্রিটেনের রাজনীতিতে তুমুল উত্তেজনা।

অপরদিকে, ব্রেক্সিট ভোটের পরে ১০ নম্বর ডাউনিং স্ট্রিট জানায়, ক্ষমতাসীন দলের বিদ্রোহী এমপিদের হুইপ সরিয়ে ফেলবেন। তাদের বহিষ্কার করা হবে সংসদীয় দল থেকে।

নিউজটি শেয়ার করুন

posted by: সময় সংযোগ টুয়েন্টিফোর

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

More News Of This Category
Copyright © by somoy songjog 24 | Developed by Md. Rajib