সোমবার, ২৬ অক্টোবর ২০২০, ০১:২৯ অপরাহ্ন
মুজিব বর্ষ
শিরোনাম :
বৃষ্টির পানিতে ভেসে গেছে রাসেলের স্বপ্ন জামালপুর ইসলামপুরে মা ইলিশ ধরায় দুই জেলের কারাদন্ড রিফাত শরীফ হত্যা মামলা : অপ্রাপ্তবয়স্ক ১৪ আসামীর রায় মঙ্গলবার গোপালগঞ্জে স্বাস্থ্যবিধি মেনে সর্বজনীন শারদীয় দুর্গোৎসব পালন চুয়াডাঙ্গার দর্শনা হিজলগাড়ী সড়কে এলোপাতাড়ি কুপিয়ে অটোভ্যান ছিনতাই মেয়েরা জন্মগত ভাবে নারী নয়- এ বি সানোয়ার হোসেন বিরামপুরে দিওড় ইউনিয়নে পূজামন্ডপ পরিদর্শন ও আর্থিক অনুদান প্রদান করেন আঃ মালেক মন্ডল চুয়াডাঙ্গা জেলায় কর্মরত জাহাতাব উদ্দীনও রুকমিয়াকে র‍্যাংক ব্যাচ পরিয়ে দিলেন এসপি জাহিদুল ইসলাম বিরামপুরে পৌর মেয়রের পূজা মন্ডপ পরিদর্শন ও আর্থিক অনুদান প্রদান জয়পুরহাট পৌর এলাকার ২৬টি পূজা মন্দিরে ৩ লাখ টাকা আর্থিক অনুদান প্রদান মেয়র মোস্তাক

বানারীপাড়ায় জমি সংক্রান্ত বিরোধের জের ধরে স্বামী-স্ত্রীকে পিটিয়ে জখম

Reporter Name
  • Update Time : বৃহস্পতিবার, ২৩ মে, ২০১৯
  • ৭৬ Time View

বিশেষ প্রতিনিধি॥

বানারীপাড়ার সলিয়াবাকপুর ইউনিয়নের মাদারকাঠি গ্রামে জমি সংক্রান্ত বিরোধের জের ধরে স্বামী-স্ত্রীকে পিটিয়ে জখম করার অভিযোগ পাওয়া গেছে। এ ব্যপারে আহত আসমা বেগম বাদী হয়ে চাখারের মহুরী হাবিবুর রহমান সান্টু সরদার,তার বাবা আ. আজিজ সরদার,ছেলে সাকিব,ভাইয়ের ছেলে হাসান,চাচা আ. হাকিম ও আ.লতিফ এবং ইউপি সদস্য মুনসুর আলীর ছেলে সোহাগকে আসামী করে থানায় লিখিত অভিযোগ দায়ের করেছেন। ওই অভিযোগ সূত্রে জানা গেছে উপজেলার সলিয়াবাকপুর ইউনিয়নের শাখারিয়া গ্রামে ৭ শতকের কিছু বেশী সম্পত্তি নিয়ে চাখারের মহুরী হাবিবুর রহমান সান্টুর সঙ্গে মাদারকাঠি গ্রামের আসমা বেগমের সঙ্গে দীর্ঘ দিন ধরে বিরোধ চলে আসছিলো।ওই বিরোধের জের ধরে বুধবার সকালে আসমা বেগমের স্বামী মো. বাবুল হাওলাদারকে শাখারিয়া গ্রামে ওই সম্পত্তির কাছে পেয়ে আসামীরা পূর্ব পরিকল্পিতভাবে বেদম মারধর করে। আহত স্বামীকে উদ্ধার করে আসমা বেগম সলিয়াবাকপুর ইউপি চেয়ারম্যান জিয়াউল হক মিন্টুর কাছে নিয়ে গিয়ে এর বিচার দাবী করেন।ওই ইউপি চেয়ারম্যান আসামীদের ডেকে আহত বাবুলের কাছে ক্ষমা প্রার্থণা করিয়ে সম্পত্তি যেভাবে আছে সেভাবে থাকবে ঈদুল ফিতরের এক সপ্তাহ পরে তিনি দু’পক্ষকে নিয়ে বসে এর ফয়সালা করে দেবেন বলে তাদের জানিয়ে দেন কিন্তু ওই দিন সন্ধ্যায় নিজ বাসা সংলগ্ন চাখারের কবুতর হাটের ব্রিজের ওপর আসামীরা বাবুল হাওলাদারের ওপর দ্বিতীয় দফা হামলা চালালে তাকে রক্ষা করতে এলে আসমা বেগমকেও মারধর করা হয়। স্থানীয়রা তাদেরকে আহত অবস্থায় উদ্ধার করে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স এনে ভর্তি করেন। প্রসঙ্গত এর আগেও দু’বার উল্লেখিত আসামীরা আসমা বেগম ও তার মেজ ভাইয়ের স্ত্রী রোকসনা বেগমকে মারধর করেছিলো। এদিকে থানার ওসি(তদন্ত) জহিরুল ইসলাম বৃহস্পতিবার সন্ধ্যায় আসামী মহুরী হাবিবুর রহমান,তার তিন চাচা ও চাচাতো ভাইকে এবং বাদী আসমা বেগমকে থানায় ডেকে আনেন। এসময় তিনি বাদীর কাছে মামলা এজাহার করবেন কিনা জানতে চ্ইালে সে মামলা এজাহার করতে চান বলে তাকে জানান।

নিউজটি শেয়ার করুন

posted by: সময় সংযোগ টুয়েন্টিফোর

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

More News Of This Category
Copyright © by somoy songjog 24 | Developed by Md. Rajib