শুক্রবার, ৩০ অক্টোবর ২০২০, ১০:৫৪ পূর্বাহ্ন
মুজিব বর্ষ
শিরোনাম :
গৃহবধূকে পিটিয়ে হত্যা আদালতের সামনে মামলার বাদীকে প্রাণনাশের হুমকি! জিনিয়া আক্তার সুইটি দিনাজপুর পৌরসভার ১ ঘন্টার প্রতিকী মেয়রের দায়িত্ব পালন করলেন বাগেরহাটে তরুনী ধর্ষন মামলাঃ ইউপি সদস্যসহ ৫ জনের দুই দিনের রিমান্ড জবিতে ‘বাংলাদেশের উপন্যাসে দেশভাগ ও সাম্প্রদায়িক দাঙ্গা’ শিরোনামে পিএইচ.ডি সেমিনার অনুষ্ঠিত ত্রিশালে মায়ের হাতে শিশু খুন ফ্রান্সে মহানবীর ব্যাঙ্গচিত্র প্রদর্শনের প্রতিবাদে ঝালকাঠিতে ইসলামী আন্দোলনের বিক্ষোভ নীলফামারী সদর ৫ নং টুপামারীর ইউনিয়ন পরিষদে শান্তিপূর্ণ পরিবেশে ভোট গ্রহণ। তারাগঞ্জে গরুবাহী নসিমনের নিচে চাপা পড়ে নিহত একজন আউচপাড়া ইউনিয়নের হাড়িপাড়া বিল,ব্যক্তি মালিকানা জমি লিজের মাধ্যমে এলাকাবাসীর মাছ চাষ জবির পরিবহন পুলে নতুন দুইটি এসি মাইক্রোবাস

বাজেটে সিগারেটে করহার পরিবর্তনের দাবিতে রংপুরে এসিডি’র উদ্যোগে র‌্যালি

Reporter Name
  • Update Time : সোমবার, ২৪ জুন, ২০১৯
  • ৭২ Time View

আলো রহমান আখি, রংপুর ব্যুরোঃ
সকল তামাকজাত পণ্যের ওপর সম্পূরক শুল্ক বৃদ্ধি, সুনির্দিষ্ট করারোপ, সরকারের রাজস্ব বৃদ্ধি এবং জনস্বাস্থ্য রক্ষার দাবিতে রংপুরে র‌্যালি ও সমাবেশ অনুষ্ঠিত হয়েছে। গতকাল সোমবার সকাল সাড়ে ৯টার দিকে রাজশাহীর উন্নয়ন ও মানবাধিকার সংস্থা ‘এ্যাসোসিয়েশন কম্যুনিটি ডেভেলপমেন্ট-এসিডি’র আয়োজনে ও ‘ক্যাম্পেইন ফর টোব্যাকো ফ্রি কিড্স-সিটিএফকে’ এর সহযোগিতায় এ কর্মসূচি পালন করা হয়। প্রত্যক্ষদর্শী সূত্রে জানা গেছে, সোমবার সকালে বাজেটে বিড়ি-সিগারেটের করহার পবির্তনের দাবিতে রংপুরের সিভিল সার্জন কার্যালয়ের সামনে থেকে একটি র‌্যালি বের করা হয়। র‌্যালিটি নগরীর প্রধান প্রধান সড়ক প্রদক্ষিণ শেষে রংপুর পাবলিক লাইব্রেরীর সামনে গিয়ে সমাবেশে রূপ নেয়। এসিডি’র এডভোকেসি অফিসার প্রদ্বীপ রায়ের সঞ্চালনায় অনুষ্ঠিত সমাবেশে বক্তব্য রাখেন- রংপুর সিভিল সার্জন ডা. আবু মো. জাকিরুল ইসলাম, বেগম রোকেয়া কলেজের বাংলা বিভাগের অধ্যাপক মো. শাহ আলম, ‘শ্যাডো’র নির্বাহী পরিচালক খন্দকার সরওয়ার জামিল, সাংস্কৃতিক ব্যক্তিত্ব লিটন পারভেজ মান্না ও মাওলানা কেরামত আলী কলেজের ইংরেজি বিভাগের প্রভাষক আহসান হাবীব রুবু প্রমুখ। তামাকে স্বাস্থ্যক্ষতির বিষয়টি উল্লেখ করে রংপুর সিভিল সার্জন ডা. আবু মো. জাকিরুল ইসলাম বলেন,‘তামাক সেবনের ফলে তামাকসেবীদের মুখ ও ফুসফুসে ক্যান্সার হচ্ছে। জর্দ্দা, গুল সেবনের ফলে মানুষের হজমক্রিয়া নষ্ট হচ্ছে। ইদানিং রংপুরে হাত ও পায়ে পচন ধরার মত রোগ অনেক বেশি দেখা দিয়েছে। তিনি আরও বলেন, এজন্য রংপুর মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে আলাদা একটি চিকিৎসক ইউনিট রয়েছে। আর এই জটিল রোগগুলো হচ্ছে তামাক চাষে তামাক প্রক্রিয়াকরণে কাজ ও তামাক সেবনের ফলে। তাই তামাকের ভয়াবহতা থেকে রক্ষা পেতে হলে তামাক বর্জন অত্যাবশ্যক।’ তামাকপণ্যের করহার পরিবর্তনের দাবি জানিয়ে সমাবেশে বক্তারা বলেন, বাজেটে নিম্নস্তরে প্রতি ১০ শলাকা সিগারেটের দাম মাত্র ২ টাকা বৃদ্ধি করে ৩৭ টাকা নির্ধারণ এবং সম্পূরক শুল্ক ৫৫ শতাংশে অপরিবর্তিত রাখা হয়েছে। ফলে প্রতি শলাকা সিগারেটের দাম বৃদ্ধি পাবে মাত্র ২০ পয়সা। জনগণের মাথাপিছু আয়বৃদ্ধি এবং মূল্যস্ফীতি বিবেচনায় নিলে নিম্নস্তরের সিগারেটের এই অতি সামান্য মুল্য বৃদ্ধিতে নিম্ন আয়ের মানুষের মধ্যে ধূমপানের প্রবণতা বাড়বে। সিগারেটসহ বিভিন্ন তামাকপণ্যে উৎসাহিত হবে দেশের ভবিষ্যৎ প্রজন্ম। ফলে প্রতিবছর দেশের ১ লাখ ৬১ হাজার মানুষের অকাল মৃত্যরোধ করা সম্ভব হবে না। সমাবেশে বক্তারা বলেন, আমরা প্রস্তাবিত বাজেট বিশ্লেষণে দেখেছি- মূল্যস্তরভেদে সিগারেট কোম্পানিগুলোকে ৩১ শতাংশ পর্যন্ত আয় বৃদ্ধির সুযোগ করে দেয়া হয়েছে। বিড়ির শলাকা প্রতি ৬ পয়সা দাম বৃদ্ধি এর ব্যবহার কমাতে কোনো ভূমিকাই পালন করবে না। বক্তারা আরও বলেন, প্রস্তাবিত বাজেটে মধ্যম, উচ্চ এবং প্রিমিয়াম স্তরে সিগারেটের সম্পূরক শুল্ক ৬৫ শতাংশ অপরিবর্তিত রেখে শুধু মূল্য পরিবর্তনের মাধ্যমে ১০ শলাকা সিগারেটের দাম নির্ধারণ করা হয়েছে যথাক্রমে ৬৩ টাকা, ৯৩ টাকা এবং ১২৩ টাকা। সূত্রে জানা গেছে,ফিল্টারবিহীন ২৫ শলাকা বিড়ির খুচরা মূল্য ৩৫ টাকা নির্ধারণ করে ৪৫% সম্পূরক শুল্ক ও ৬ টাকা সুনির্দিষ্ট সম্পূরক শুল্ক আরোপ; প্রতি ১০ গ্রাম জর্দ্দার খুচরা মূল্য ৩৫ টাকা এবং প্রতি ১০ গ্রাম গুলের খুচরা মূল্য ২০ টাকা নির্ধারণ; অপ্রক্রিয়াজাত তামাকের বিদ্যমান ১০ শতাংশ রপ্তানি শুল্ক এবং প্রক্রিয়াজাত তামাকপণ্যের ওপর ইতোপূর্বে বিদ্যমান ২৫ শতাংশ রপ্তানি শুল্ক পুনর্বহাল, প্রতি ১০ শলাকা সিগারেটের সর্বনি¤œ মূল্য ৩৭ টাকার পরিবর্তে ৫০ টাকা; নি¤œস্তরের সিগারেটের ওপর বিদ্যমান ৫৫ শতাংশ সম্পূরক শুল্ক ৫ শতাংশ বৃদ্ধি করে ৬০ শতাংশ এবং মধ্যম, উচ্চ ও প্রিমিয়াম স্তরে বিদ্যমান ৬৫ শতাংশ সম্পূরক শুল্ক ৫ শতাংশ বৃদ্ধি করে ৭০ শতাংশ নির্ধারণেরও দাবি জানান।
উল্লেখ্য, সরকারের এই পদক্ষেপে বিগত বছরের তুলনায় মূল্যস্তরভেদে তামাক কোম্পানিগুলোর আয় ৩১ শতাংশ পর্যন্ত বৃদ্ধি পাবে। ফলে বহুজাতিক তামাক কোম্পানিগুলো এবারের বাজেটে ব্যাপকভাবে লাভবান করে দেয়া হচ্ছে ।

নিউজটি শেয়ার করুন

posted by: সময় সংযোগ টুয়েন্টিফোর

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

More News Of This Category
Copyright © by somoy songjog 24 | Developed by Md. Rajib