সোমবার, ২৬ অক্টোবর ২০২০, ০১:৩০ অপরাহ্ন
মুজিব বর্ষ
শিরোনাম :
বৃষ্টির পানিতে ভেসে গেছে রাসেলের স্বপ্ন জামালপুর ইসলামপুরে মা ইলিশ ধরায় দুই জেলের কারাদন্ড রিফাত শরীফ হত্যা মামলা : অপ্রাপ্তবয়স্ক ১৪ আসামীর রায় মঙ্গলবার গোপালগঞ্জে স্বাস্থ্যবিধি মেনে সর্বজনীন শারদীয় দুর্গোৎসব পালন চুয়াডাঙ্গার দর্শনা হিজলগাড়ী সড়কে এলোপাতাড়ি কুপিয়ে অটোভ্যান ছিনতাই মেয়েরা জন্মগত ভাবে নারী নয়- এ বি সানোয়ার হোসেন বিরামপুরে দিওড় ইউনিয়নে পূজামন্ডপ পরিদর্শন ও আর্থিক অনুদান প্রদান করেন আঃ মালেক মন্ডল চুয়াডাঙ্গা জেলায় কর্মরত জাহাতাব উদ্দীনও রুকমিয়াকে র‍্যাংক ব্যাচ পরিয়ে দিলেন এসপি জাহিদুল ইসলাম বিরামপুরে পৌর মেয়রের পূজা মন্ডপ পরিদর্শন ও আর্থিক অনুদান প্রদান জয়পুরহাট পৌর এলাকার ২৬টি পূজা মন্দিরে ৩ লাখ টাকা আর্থিক অনুদান প্রদান মেয়র মোস্তাক

বরগুনায় শিক্ষকের বেত্রাঘাতে আহত ৬ শিক্ষার্থী

Reporter Name
  • Update Time : শনিবার, ১৩ জুলাই, ২০১৯
  • ৬১ Time View

জেলা প্রতিনিধি, বরগুনা।।

বরগুনায় ৫ ম শ্রেণীর গনিত বিষয়ে জ্যামিতি এবং অঙ্ক না পারায় সহকারী শিক্ষক গোলাম মোস্তফার বেত্রাঘাতে ৬ শিক্ষার্থী গুরুতর আহত হয়েছে বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে। ঘটনাটি ঘটেছে বৃহস্পতিবার সাড়ে ১১ টায় সদর উপজেলার গৌরীচন্না ইউনিয়নের পূর্ব ধূপতী মনসাতলী সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ে। এ ঘটনায় শিক্ষার্থী, অভিভাবকসহ ওই স্কুলের ম্যানেজিং কমিটির সদস্যরা বৃহস্পতিবার বিকাল সাড়ে ৫ টায় বরগুনা সদর উপজেলা শিক্ষা কর্মকর্তার কাছে সহকারী শিক্ষক গোলাম মোস্তফার বিরুদ্ধে লিখিত অভিযোগ করেন। আহত শিক্ষার্থীরা হলেন, প্রিয়াঙ্কা, মারিয়া জান্নাতি, মিথিলা আকতার, জান্নাতি, রেজাউল, অলি উল্লাহ্।

৫ম শ্রেণীর শিক্ষার্থী আহত প্রিয়াঙ্কা, মারিয়া ও মিথিলা আকতার বৃষ্টির কাছ থেকে জানা যায়, পূর্ব ধূপতী মনসাতলী সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ের ৫ম শ্রেণীর গনিত বিষয়ে জ্যামিতি এবং অঙ্ক না পারায় ওই স্কুলের সহকারী শিক্ষক গোলাম মোস্তফা ৬ শিক্ষার্থীকে লাঠি দিয়ে পিটিয়ে আহত করেন। শিক্ষার্থীদের হাতে পিঠে এমনকি উরুতে পিটিয়ে ফুলা জখম করেন তিনি। আহত শিক্ষার্থী মিথিলার মা নুপুর বলেন, আমার বাচ্চা অঙ্কে সামান্য একটু ভুল করেছে যার জন্য শিক্ষক গোলাম মোস্তফা ওকে গোরুর মত পিটিয়েছে। উরুতে, হাতে পিঠে এবং আঙ্গুলে পিটানোর ফলে আঙ্গুল ফুলে গেছে। তিনি আরও বলেন, অনেক সময় বাচ্চাকে আনতে স্কুলে যাই, তখন আমাদের সামনে শুয়ারের বাচ্চা বলে শিক্ষার্থীদের গালি দেয় শিক্ষক গোলাম মোস্তফা। এই শিক্ষককে এই স্কুলে আমরা চাইনা। আমি এর বিচার চাই। এই শিক্ষক যদি এই স্কুলে থাকে, তাহলে আমার বাচ্চা আমি এখানে পড়াবোনা।

এ বিষয়ে স্কুল ম্যানেজিং কমিটির সভাপতি জয়নাল খলিফা ঘটনার সত্যতা স্বীকার করে বলেন, শিক্ষক গোলাম মোস্তফা একজন খারাপ লোক, তার আচার ব্যবহার আদৌ ভালো নয়। শিক্ষার্থী এবং অভিভাবকদের সাথে সে সব সময় দূর্ব্যবহার করে। সে একজন সুদের ব্যবসায়ী। এর আগে অন্য স্কুলে থাকাকালীন সময়ে অনেক অপ্রীতিকর ঘটনা ঘটিয়েছে এই শিক্ষক। তিনি আরও বলেন, শিক্ষা মন্ত্রী মহোদয়ের কাছে আজকের এই শিক্ষার্থী পেটানোর কঠিন বিচার দাবী করছি আমি।

জানতে চইলে শিক্ষক গোলাম মোস্তফা শিক্ষার্থী পেটানোর এ অভিযোগ অস্বিকার করে তিনি বলেন, এ ধরনের কোন ঘটনাই ঘটেনি, তবে বাচ্চাদের সামান্য ধমক দেয়া হয়েছে।

এ ব্যাপারে বরগুনা সদর উপজেলা শিক্ষা কর্মকর্তা মাসুদুর রহমান বলেন, আমি লিখিত অভিযোগ পেয়েছি, তদন্ত সাপেক্ষে যথাযথ ব্যবস্থা নেয়া হবে।

নিউজটি শেয়ার করুন

posted by: সময় সংযোগ টুয়েন্টিফোর

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

More News Of This Category
Copyright © by somoy songjog 24 | Developed by Md. Rajib