শুক্রবার, ৩০ অক্টোবর ২০২০, ০৬:৩৯ অপরাহ্ন
মুজিব বর্ষ
শিরোনাম :
মহানবী (সঃ)-কে নিয়ে ব্যঙ্গচিত্র প্রদর্শনের প্রতিবাদে চিতলমারীতে বিক্ষোভ মিছিল ও সমাবেশ বিরামপুর দিওড় ইউনিয়নে মসজিদে টাইলস দিলেন সমাজ সেবক আঃ মালেক মন্ডল ফ্রান্সে মহানবীর ব্যঙ্গচিত্র প্রদর্শনের প্রতিবাদে পিরোজপুরের কাউখালীতে মানববন্ধন ফ্রান্সে বিশ্ব নবী মুহাম্মদ (সাঃ) ব্যাঙ্গচিত্র প্রতিবাদে পঞ্চগড়ে বিক্ষোভ রংপুরে নারী ও মেয়েদের অধিকার সুরক্ষাকারীদের প্রশিক্ষণ শুরু তালতলীতে সংযোগ ব্রিজটির বেহাল দশা, ভোগান্তিতে এলাকাবাসী রংপুরে নিয়ম নীতিমালা ভঙ্গ করে বোরিং লাইসেন্স নেওয়ার অভিযোগ উঠেছে ফ্রান্সে মহানবীর (সা:) ব্যঙ্গচিত্র প্রদর্শনের প্রতিবাদে পিরোজপুরে জুমাবাদ বিক্ষোভ মিছিল ও সমাবেশ গোপালগঞ্জ শহরের সার্বজনীন খাটরা কালিবাড়িসহ জেলার বিভিন্ন স্থানে লক্ষ্মী প্রতিমার হাট চুয়াডাঙ্গা সদর থানা পুলিশের মাদক বিরোধী অভিযানে আটক ১জন

বরগুনায় অনিক হত্যা মামলায় মৃত্যুদণ্ড ১

Reporter Name
  • Update Time : বৃহস্পতিবার, ৮ আগস্ট, ২০১৯
  • ৬৫ Time View

জেলা প্রতিনিধি, বরগুনা।।

বরগুনায় আলোচিত অনিক হত্যা মামলায় একজনকে মৃত্যুদণ্ড ও দুইজনকে যাবজ্জীবন কারাদণ্ড দিয়েছেন আদালত। এছাড়া তিনজনকে বেকসুর খালাস দেয়া হয়েছে। বরগুনা জেলা ও দায়রা জজ আদালতের বিচারক মো. আছাদুজ্জামান আজ বুধবার দুপুরে এ রায় প্রদান করেন।

দণ্ডপ্রাপ্তরা হলেন- মামলার প্রধান আসামি সালাউদ্দিন গাজীকে মৃত্যুদণ্ডের পাশাপাশি ৫০ হাজার টাকা জরিমানা, রুবেল সওদাগর ও নাজমুলকে যাবজ্জীবন কারাদণ্ড। অভিযোগ প্রমানিত না হওয়ায় হৃদয় আহসান, বাদল কৃষ্ণ রায় ও সোহেল খানকে বেকসুর খালাশ দেয়া হয়েছে।

মামলার বিবরণে জানা গেছে, ২০১৩ সালের ১৯ সেপ্টেম্বর সন্ধ্যার পরে বরগুনা পৌরসভার শহীদ স্মৃতি সড়কের সুবল চন্দ্র রায়ের ছেলে অনিককে (১৭) কোমল পানীয়র সাথে চেতনানাশক খাইয়ে ডিস লাইনের ক্যাবল তার গলায় বেধে ফাঁস দিয়ে হত্যা করা হয়। পরে অনিকের মরদেহ বরগুনা জেলা সাব-রেজিষ্ট্রার অফিসের পুরাতন ভবনের পাশে সেফটিক ট্যাংকির ভিতরে ফেলে রাখে। অনিককে হত্যার পরেরদিন সকাল সাড়ে ৯টার দিকে অনিকের বাবা সুবল চন্দ্র রায়কে মোবাইল করে ৩ লক্ষ টাকা মুক্তিপন দাবি করা হয়। অনিক হত্যার ৩ দিন পরে তার বাবা সুবল চন্দ্র রায় বাদী হয়ে বরগুনা থানায় হত্যা মামলা দায়ের করেন। পরে একাধিক আসামি গ্রেফতার হলে তাদের স্বীকারোক্তি অনুযায়ি হত্যার আঠারো দিন পরে ৫ অক্টোবর রাত আটটার দিকে সেফটিক ট্যাংকির ভিতর থেকে অনিকের মরদেহ উদ্ধার করা হয়।

মামলার দীর্ঘ শুনানী ও ৩৪ জনের সাক্ষ্য গ্রহন শেষে বরগুনার জেলা ও দায়রা জজ আজ বেলা সাড়ে ১২টার দিকে রায় ঘোষণ্ড করেছেন।

সরকার পক্ষে মামলা পরিচালনা করেন, নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইব্যুনালের বিশেষ পিপি মোস্তাফিজুর রহমান বাবুল। আসামিপক্ষে ছিলেন, বরগুনা জেলা আইনজীবী সমিতির সাধারণ সম্পাদক মাহবুবুল বারী আসলামসহ একাধিক আইনজীবী।

নিউজটি শেয়ার করুন

posted by: সময় সংযোগ টুয়েন্টিফোর

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

More News Of This Category
Copyright © by somoy songjog 24 | Developed by Md. Rajib