রবিবার, ২৫ অক্টোবর ২০২০, ১০:২৪ অপরাহ্ন
মুজিব বর্ষ

পাথরঘাটা উপজেলা স্বাস্থ্য কম্পেলেক্স : সরকারি বাসভবনের ভাড়া ফাঁকির অভিযোগ স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তার বিরুদ্ধে

Reporter Name
  • Update Time : রবিবার, ৮ সেপ্টেম্বর, ২০১৯
  • ৭৮ Time View

জেলা প্রতিনিধি, বরগুনা ।।

বরগুনার পাথরঘাটা উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা (ইউএইচঅ্যান্ডএফপিও) মাসুমুল হক খান এর বিরুদ্ধে দীর্ঘদিন ধরে বাড়িভাড়া ফাঁকি দেয়ার অভিযোগ ওঠেছে। গত সাড়ে ২৭ মাস ধরে নামমাত্র বাড়িভাড়া দিয়ে সরকারকে মোটা অংকের টাকা ফাঁকি দিচ্ছেন। এতে প্রায় সাড়ে ৪ লাখ টাকা সরকারের কোষাগারে জমা না দিয়ে বাড়িভাড়ার নামে ওই টাকা আত্মসাত করা হয়েছে বলে অভিযোগ ওঠেছে।

পাথরঘাটা উপজেলা স্বাস্থ্য কম্পেলেক্স ও পাথরঘাটা উপজেলা হিসাব রক্ষণ কর্মকর্তা কার্যালয়ে ইউএইচঅ্যান্ডএফপিও মাসুমুল হক খান এর বেতন নথিপত্র ঘেটে এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তারা।

পাথরঘাটা উপজেলা হিসাব রক্ষণ কর্মকর্তা মোহাম্মদ সেলিম উদ্দিন বলেন, তিনি ওই বাসভবনে ওঠার শুর থেকে বলে আসছে এ বাসভবনটি আমার থাকার উপযোগী না। তার পরও তিনি ওই বাসভবনটিতে থাকছেন। কারো বাসাবাড়ি ব্যাবহারের উপযোগী কিনা তা দেখার দায়িত্ব আমার না। সে গেজেটেট অফিসার, তার বিল নিজেই প্রস্তত করে দেন, আমি বিলটি পাশ করি মাত্র।

নির্ভরযোগ্য সূত্রে জানা গেছে, পাথরঘাটা উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা (ইউএইচঅ্যান্ডএফপিও) মো. মাসুমুল হক খান ২০১৭ সালের ১২ এপ্রিল পাথরঘাটায় ইউএইচঅ্যান্ডএফপিও পদে যোগদান করেন। যোগদান করেই তিনি পাথরঘাটা উপজেলা স্বাস্থ্য কম্পেলেক্সের ভিতরে সুসজ্জিত ইউএইচঅ্যান্ডএফপিও বাসভবনে ওঠেন। ওই বাসভবনেই তিনি স্ত্রীসহ গত সাড়ে ২৭ মাস ধরে অবস্থান করছেন। তবে মো. মাসুমুল হক খানের মূল বেতনের নিয়মানুযায়ী ঘরভাড়া না দিয়ে নামমাত্র বাড়িভাড়া দিয়ে সরকারকে মোটা অংকের টাকা প্রতি মাসে ফাঁকি দিচ্ছেন।

ওই সূত্রটি আরও জানায়, ২০১৯-২০২০ অর্থবছরে ইউএইচঅ্যান্ডএফপিও মো. মাসুমুল হক খানের মূল বেতন ৫৩ হাজার ৮৬৫ টাকা। ওই বেতনের ৪০ ভাগ বাড়িভাড়া আসে ১৮ হাজার ৭৬৩ টাকা। ওই বাড়িভাড়ার টাকা ২০১৯-২০২০ অর্থবছরে বাড়িভাড়া হিসাবে সরকারি কোষাগারে জমা দিবেন। কিন্তু মো. মাসুমুল হক খান ওই টাকা জমা না দিয়ে গত জুলাই মাসে মাত্র এক হাজার ৮৭৬ টাকা জমা দেন। যা সরকারি বাড়িভাড়া নিয়মবর্হিভূত। ওই জুলাই মাসে তিনি বাড়িভাড়া বাবদ ১৬ হাজার ৮৮৭ টাকা সরকারি কোষাগারে কম জমা দিয়েছেন। এভাবে গত সাড়ে ২৭ মাসে ইউএইচঅ্যান্ডএফপিও মো. মাসুমুল হক খান প্রায় সাড়ে ৪ লাখ টাকা বাড়িভাড়া বাবদ আত্মসাত করেছেন।

অভিযোগ প্রসঙ্গে পাথরঘাটা উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা (ইউএইচঅ্যান্ডএফপিও) মাসুমুল হক খান বলেন, এ বিষয় ফোনে কথা বলা যাবে না, আপনি অফিসে আসেন।

এ ব্যপারে বরগুনার সিভিল সার্জন মো. হুমায়ুন শাহীন খান বলেন, এ বিষয়টা আমার জানা নাই। তবে পাথরঘাটা একাউন্স অফিস বাড়ি ভাড়ার বরাদ্ধ দেখেই বিল পাস করার কথা। এ ব্যাপারে ওই একাউন্স অফিসই ভালো বলতে পারবে।

নিউজটি শেয়ার করুন

posted by: সময় সংযোগ টুয়েন্টিফোর

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

More News Of This Category
Copyright © by somoy songjog 24 | Developed by Md. Rajib