বৃহস্পতিবার, ০২ ডিসেম্বর ২০২১, ০৬:২৯ অপরাহ্ন
মুজিব বর্ষ
শিরোনাম :
নওগাঁর আত্রাইয়ে ১৬ ডিসেম্বর মহান বিজয় দিবস উপলক্ষে প্রস্তুতি মূলক সভা বাগমারায় অগ্নিকান্ডে এক কৃষকের বাড়ি পুড়ে ছাই জমে উঠতে শুরু করেছে আমতলীর অস্থায়ী গরীবের শীত বস্ত্রের বাজার, দামে হতাশ ক্রেতারা ভালুকায় বনভূমি দখলের অভিযোগে সম্ভাব্য ইউপি চেয়ারম্যান প্রার্থীর বিরুদ্ধে বনআইনে মামলা এম ই ফাউন্ডেশনের আয়োজনে নিউ বিজনেস ক্রিয়েশন প্রশিক্ষণ কর্মশালা শেষে সনদপত্র বিতরণ বাজারের একটি প্লট নিয়ে বিরোধে ব্যবসা প্রতিষ্ঠানে হামলা ও লুট! মহিলাসহ আহত -৩ দ্রুত সংস্কার ও নতুন করে বাঁধ নির্মাণের দাবি ভূক্তভোগী পরিবারগুলোর বীর মুক্তিযোদ্ধা আনোয়ার হোসেনের রাষ্ট্রীয় মর্যাদায়য় দাফন সম্পন্ন তালতলীতে খাস জমি ও প্রাকৃতিক সম্পদে ভুমিহীন নারীর অধিকার প্রতিষ্ঠা শীর্ষক সেমিনার অনুষ্ঠিত উজিরপুরের হারতায় স্বতন্ত্র চেয়ারম্যান প্রার্থীর প্রচার প্রচারণায় চলচ্চিত্র তারকারা
সিলেট বিভাগের সকল জেলায় জেলা প্রতিনিধি আবশ্যক। আগ্রহীগন যোগাযোগ করুন somoysongjog24@gmail.com

নীলফামারীর জলঢাকায় গ্রামীণ অবকাঠামো উন্নয়ন সংস্কারে পাল্টে যাচ্ছে পথঘাট

সোহেল রানা, নীলফামারী প্রতিনিধি
  • Update Time : রবিবার, ১৮ জুলাই, ২০২১
  • ৯১ Time View

মাননীয় প্রধান মন্ত্রীর প্রচেষ্টা গ্রাম হবে শহর। আর এই প্রচেষ্টা বাস্তয়নে গ্রামীণ আর্থসামাজিক উন্নয়নে টিআর-কাবিটার বরাদ্দ দিয়েই জলাঢাকা উপজেলার চলাচলে অযোগ্য রাস্তা গুলো করা হয়েছে সংস্কার। এতে পথচারীদের দীর্ঘদিনের ভোগান্তি দূর হওয়ার পাশাপাশি বেড়েছে রাস্তার প্রশস্ত। চলতি অর্থবছরে প্রায় কোটি টাকা ব্যায়ে উপজেলার একটি পৌরসভা ও ১১টি ইউনিয়নের বেশীর ভাগ গ্রামীণ রাস্তা, মসজিদ, মন্দির, ইউনিয়ন পরিষদসহ বিভিন্ন প্রতিষ্ঠানের করা হয় সংস্কার।
তবে এই প্রকল্প বাস্তবায়নে জলঢাকা উপজেলার খুটামারা ৭নং ওয়ার্ডের দীর্ঘদিনের অবহেলিত ইউনিয়ন পরিষদটি সংস্কারে এলাকার হাজারো মানুষ এখন অনন্দিত।
মানিক হোসেন বলেন, আমাদের এই পরিষদটি দেখতে খুব বিশ্রি ছিলো। এবছর বরাদ্দ পেয়ে সংস্কার করায় পাল্টে গেছে পরিষদের চিত্র। ঘর গুলো অনেক নিচু ছিলো জানালার গুলো ভেঙ্গে পড়ে ছিলো। ইট দিয়ে উঁচু করা হয়েছে এবং জানালা দরজা গুলো পরিবর্তন করেছে। এতে আমরা এলাকাবাসী অনেক অনন্দিত।
গন্ধেয়াপাড়ার পাকা রাস্তা থেকে বাগানবাড়ী পর্যন্ত রাস্তাও করা হয়েছে সংস্কার। এই পাড়ার মোশাররফ হোসেন বলেন, কিছুদিন আগে রাস্তার সংস্কার করা হয়েছে। আগে ভ্যান গাড়ীও চলাচল করতে পারতো না। রাস্তার অনেক জায়গায় ভাঙ্গা ছিলো। এখন রাস্তা সংস্কার করার পর থেকে এলাবাসীর চলাচলে অনেক সুবিধা হয়েছে।
প্রকল্প বাস্তবায়ন কর্মকর্তা ময়নুল ইসলাম বলেন, আমার নিজস্ব তৎপরতায় শতভাগ কাজের মান নিশ্চিত করতে পেরেছি। আশা করছি গ্রামীণ অবকাঠামো সংস্কারে হাজার হাজার মানুষ সূফল ভোগ করবে।
উপজেলা নির্বাহী অফিসার মাহবুব হাসান বলেন, আমরা সদা তৎপর রয়েছি গ্রামীণ অবকাঠামো সংস্কারে। এবছর গ্রামীণ আর্থসামাজিক উন্নয়নের কথা চিন্তা করে টিআর-কাবিটার অর্থ বরাদ্দ দিয়েই বেশির ভাগ গ্রামীণ রাস্তা সংস্কার করা হয়েছে। খানাখন্দকে ভড়া এসব রাস্তায় মানুষ একসময়ে চলাচল করতে বিরক্তিকর বোধ করতো।

নিউজটি শেয়ার করুন

posted by: সময় সংযোগ টুয়েন্টিফোর

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

More News Of This Category
Copyright © by somoy songjog 24 | Developed by Md. Rajib