শুক্রবার, ১৪ মে ২০২১, ০৮:১৮ অপরাহ্ন
মুজিব বর্ষ
শিরোনাম :
বিশ্ব ঐতিহ্য ষাটগম্বুজ মসজিদে ঈদের জামায়াত অনুষ্ঠিত বাগেরহাটে বৃদ্ধকে গলা কেটে হত্যা ৫ শতাধিক দরিদ্র পরিবারে ঈদ উপহার দিলেন উদয়কাঠী ইউপি’র প্যানেল চেয়ারম্যান জাকির পিরোজপুরে অসহায় কর্মহীন মানুষের পাশে ”ফ্রেন্ডস’ ৯৭ পিরোজপুর” অসচ্ছল-প্রতিবন্ধী-এতিমদের মাঝে নতুনধারার ‘ঈদ উপহার’ নওগাঁয় অপহরণের নাটক সাজিয়ে পিতার নিকট থেকে মুক্তিপণ আদায়ের চেষ্টা:পুত্রসহ আটক ২ দিনাজপুরের পাঁচ উপজেলায় ঈদুল ফিতরের নামাজ আদায় কিন্ডারগার্টেন শিক্ষকদের সহায়তা দিলো রংপুর জেলা প্রশাসন নওগাঁয় সাংস্কৃতিক সংগঠন আত্রাই সুরের মোহনার ঈদ উপহার বিতরণ প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা এই দুর্যোগ মোকাবেলায় সর্বোচ্চ গুরুত্ব দিয়েছে-হুইপ ইকবালুর রহিম
সিলেট বিভাগের সকল জেলায় জেলা প্রতিনিধি আবশ্যক। আগ্রহীগন যোগাযোগ করুন somoysongjog24@gmail.com

নীলফামারীতে গৃহবধুর অশ্লীল ছবি ফেসবুকে আপলোর্ড ,লোকলজ্জায় একঘরে পরিবার

নীলফামারী প্রতিনিধিঃ
  • Update Time : শনিবার, ১০ এপ্রিল, ২০২১
  • ১৫৪ Time View
নীলফামারী সদর উপজেলার চওড়া বড়গাছা ইউনিয়নের ঢেঁপরডাঙ্গার আবুল কাশেমের ছেলে মমতাজুল ইসলাম । সাম্প্রতি পার্শ¦বর্তী গোড়গ্রাম ইউনিয়নের ধোপাডাঙ্গার এক গৃহকর্মীকে ফাঁদে ফেলে আশ্লীল ছবি ধারণ করে নিজস্ব ফেসবুকে করেছে আপলোর্ড। এতে গৃহবধুর পুরো পরিবার লোকলজ্জার ভয়ে ঘর হতে বের হতে পারছে না। কিন্তু আজও  ধরা ছোয়াঁর বাহিরে অশ্লীল ছবি গুলো অপলোর্ডকারী মমতাজুল।
এলাকাবাসী সূত্রে জানা যায়, গৃহবধু ইলাবতীর (ছদ্দনাম) স্বামীর সাথে দীর্ঘদিনের বন্ধুত্বের খাতিরে প্রায়ই তার বাড়িতে যাওয়া আসা করে মমতাজুল ইসলাম। সুসম্পর্কের একপর্যায়ে গৃহবধুকে ভুলিয়ে ভালিয়ে তার নিজের মোবাইল দিয়ে অশ্লীল ছবি ধারণ করে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে আপলোড করে মমতাজুল ইসলাম। পরবর্তীতে এই ছবিগুলো সমাজে ভাইরাল হলে ইলাবতী ও তার স্বামীসহ পরিবারের উপর সামাজিক ও মানসিক চাপ সৃষ্টি হয়। হোটেল শ্রমিক স্বামী লোকলজ্জার ভয়ে কাজে যোগদান করতে পারছে না। অথচ অনায়াসে ঘোরাফেরা করতে দেখা যাচ্ছে প্রভাবশালী মমতাজুলকে।
এলাকার সচেতন মহল, ইবনে মিজান সম্রাট , আলমগীর, লিমন, বলেন, ফেসবুকে অশ্লীল ছবি আপলোর্ড করা একটি জঘন্যতম অপরাধ। প্রভাবশালী মমতাজুল ইসলামের দেওয়া তিন থেকে চার লাখ টাকার বিনিময়ে এলাকার মাতব্বর ,ইউপি চেয়ারম্যান, স্থানীয় ইউপি সদস্য বিষয়টি ধামাচাপা দেওয়ার জন্য নাম মাত্র গ্রাম্য সালিশের মাধ্যমে তাকে বাঁচিয়ে দেওয়ার অপকৌশল চালায়। সেই সাথে এলাকার আবুল খায়ের বিটু নামের একজন মাত্র ষাট থেকে সত্তর হাজার টাকা দিয়ে জোর পূর্বক মীমাংসা হয়েছে মর্মে সালিশি কাগজে স্বাক্ষর নেয় ইলাবতির পরিবারের কাছ থেকে। যার কারণে আজ লজ্জায় একঘরে পুরো পরিবার। নারীদের জীবন নিয়ে ছিনিমিনি খেলা এই সমস্ত লোভী হায়নার দৃষ্টান্ত মূলক শাস্তির দাবী জানায় সচেতন মহল।
১নং চওড়া বড়গাছা ইউনিয়ন ছাত্রলীগের সভাপতি আব্দুল্লা আল ইমরান বলেন, ফেসবুকে গৃহবধুর অশ্লীল ছবি আপলোর্ড করায় মেয়েটির সম্মান খুন্ন হয়েছে। আর কোন নারীর সম্মান ক্ষুন্ন করতে না পারে তাই মমতাজুল ইসলামের উপযুক্ত শাস্তি কামনা করছি।
২ নং গোড়গ্রাম ইউনিয়ন চেয়ারম্যান রেয়াজুল ইসলাম বলেন, আমার এলাকার গৃহবধুর ছবি ফেসবুকে আপলোর্ড করার ঘটনার বিষয়টি আমি সদর থানা ওসির কাছ থেকে জানতে পারি এবং তিনি একটি মোবাইল নাম্বার চাইলে আমি ওসিকে নাম্বার দিয়ে সহযোগীতা করি। এরপর কি হয়েছে আমি জানি না।
এবিষয়টি জেলা পুলিশ সুপার মোহাম্মদ মোখলেছুর রহমান বিপিএম,পিপিএম বলেন, ফেসবুকে একজন নারীর অশ্লীল ছবি আপলোড করা মারাত্তক অপরাধ। থানায় অভিযোগ আসলে প্রয়োজনীয় ব্যাবস্থা নেওয়া হবে।

নিউজটি শেয়ার করুন

posted by: সময় সংযোগ টুয়েন্টিফোর

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

More News Of This Category
Copyright © by somoy songjog 24 | Developed by Md. Rajib