শনিবার, ৩১ অক্টোবর ২০২০, ০৪:৪৮ অপরাহ্ন
মুজিব বর্ষ
শিরোনাম :
বাগমারায় গোবিন্দপাড়া ইউনিয়নে স্বামীর নির্যাতনে গৃহবধুর মৃত্যু নীলফামারী কমিউনিটি পুলিশিং ডে উপলক্ষে আলোচনা সভা ও পুরুষ্কার বিতারণ চুয়াডাঙ্গায় বর্ণাঢ্য আয়োজনে কমিউনিটি পুলিশিং ডে ২০২০ পালিত আমতলীর বেশ কয়েকটি স্পটে চলছে আইপিএল নিয়ে জমজমাজ জুয়া খেলা! সুমন স্মৃতি গোল্ডকাপ ফুটবল টুর্নামেন্ট এর ফাইনাল খেলা অনুষ্ঠিত ঝালকাঠিতে ঈদে মিলাদুন্নবীর দোয়া-মোনাজাতে ১৪ দলের মুখপাত্র আমির হোসেন আমু দর্শনা থানা পুলিশের বিশেষ অভিযানে পাখি ভ্যানসহ গ্রেফতার ৩ জবির স্বপ্নীল বাসের চালক জসিম আর নেই যমুনার চরাঞ্চলে কৃষকরা বাদাম চাষে ব্যস্ত বিরামপুরে পৌর আওয়ামীলীগের ৮নং ওয়ার্ড কমিটির বর্ধিত আলোচনা সভা

ডেঙ্গু ঝুঁকিতে বেনাপোল আন্তজার্তিক চেকপোষ্ট

Reporter Name
  • Update Time : সোমবার, ৫ আগস্ট, ২০১৯
  • ১২৯ Time View

যশোর প্রতিনিধি ॥

ডেঙ্গু ঝুঁকিতে বেনাপোল আন্তজার্তিক চেকপোষ্ট। ডেঙ্গু রোগ প্রতিরোধে স্বাস্থ্য অধিদপ্তর থেকে আন্তজার্তিক এই চেকপোষ্টে সতর্কতা জারি করা হলেও বাস্তবে এখানে ডেঙ্গু প্রতিরোধে কোন পদক্ষেপ নেয়নি কতৃপক্ষ। চেকপোষ্টে কর্মরত কাষ্টমস, বিজিবি,পুলিশ, আনসার সকলেই রয়েছেন ডেঙ্গু আতঙ্কে। তারা বলছেন, স্বাস্থ্য অধিদপ্তর থেকে এখানে একটি মেডিকেল টিম গঠন করলে সকলে স্বস্থি পেতাম। এদিকে, বেনাপোল পৌর ও শার্শা উপজেলা এলাকার রাস্তা ঘাট ও শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে ময়লা আবর্জনা ও জমে থাকা পানিতে দূর্গন্ধ ছড়াচ্ছে। এলাকাবাসী বলছেন ১০ বছর আগে একবার মশা মারার ঔষুধ ছিটিয়ে ছিল। তারপর আর কোনদিন চোখে পড়েনি।

বেনাপোল দেশের বৃহত্তম স্থলবন্দর ও আন্তজার্তিক চেকপোষ্ট। ডেঙ্গু রোগ প্রতিরোধে স্বাস্থ্য অধিদপ্তর প্রচার করছেন বেনাপোল আন্তজার্তিক চেকপোষ্টে সতর্কতা জারি করা করা হয়েছে। কিন্তু এখানে ডেঙ্গু প্রতিরোধে কোন কার্যক্রমই নেই। ভারত থেকে আসা যাত্রীর গায়ের তাপমাত্রা মাপার জন্য এখানে স্ক্যানার মেশিন আছে, টেবিল চেয়ার আছে, কম্পিউটার আছে তবে সেখানে কোন ডাক্তার নেই। এ চেকপোষ্টে কর্মরত কাষ্টমস, পুলিশ, আনসার সকলেই রয়েছেন ডেঙ্গু আতঙ্কে। তারা বলছেন, স্বাস্থ্য অধিদপ্তর থেকে একটি মেডিকেল টিম গঠন করলে আমরা সকলে স্বস্তি পেতাম।
ডেঙ্গু সংক্রমিত এলাকাসহ সারাদেশ থেকে প্রতিদিন এই চেকপোষ্ট দিয়ে ৫ থেকে ৭ হাজার পাসপোর্ট যাত্রী ভারত বাংলাদেশের মধ্যে যাতায়াত করে থাকে। ডেঙ্গু রোগ ঢাকায় মহামারী আকার ধারন করেছে। প্রতিদিনই এ রোগে আক্রান্ত হয়ে মানুষ মারা যাচ্ছে। ঢাকা থেকেই সবচেয়ে বেশী মানুষ বেনাপোল চেকপোষ্ট দিয়ে প্রতিদিন ভারতে যাচ্ছে। এখানকার সাধারন মানুষ ধারনা করছেন ঢাকা থেকে আসা যাত্রীর মাধ্যমে বেনাপোলেও ডেঙ্গু রোগ ছড়িয়ে পড়তে পারে।
এদিকে, বেনাপোল পৌর ও শার্শা উপজেলা এলাকার কয়েকটি শিক্ষা প্রতিষ্ঠান ও আবাসিক এলাকার চারিদিকে ছোপ ছোপ পানিতে গাছপাল জন্মে বাগান হয়ে গেছে। ড্রেনগুলি দীর্ঘদিন পরিস্কার না করার কারনে পোকা ও মশা মাছিতে ভরে গেছে। রাস্তাার চারপাশ গুলি ডাবের খোলা আর কর্দমাক্ত স্যাত স্যাতে অবস্থা। যা ডেঙ্গু মশা জন্মানোর উপযুক্ত পরিবেশ। ফলে এখানকার মানুষ এখন ডেঙ্গু আতঙ্কে দিন কাটাছে। পৌরবাসীর অভিযোগ উড়িয়ে দিয়ে পৌর মেয়র বলেন, যারা বলছেন তারা জানে না। পৌর এলাকার প্রতিটি ওয়ার্ডে প্রতিবছর মশা নিধনের জন্য ঔষুধ স্পেরে করা হয়।

শার্শা উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে মেডিকেল অফিসার ডাঃ মোঃ নজরুল ইসলাম বলেন ৪ থেকে ৫ জন জ্বরে আক্রান্ত রোগী রয়েছেন। এরা প্রত্যেকে ১০ থেকে ১২ দিন ধরে জ্বরে ভুগছেন। চিকিৎসা দেয়া হচ্ছে স্বাভাবিক জ্বরের। আমাদের এখানে প্রতিদিন ৪/৫ জন জ্বরে আক্রান্ত রোগী ভর্তি হয়। সুস্থ্য হয়ে আবার চলে যায়। এখনো পর্যন্ত ডেঙ্গু রোগে আক্রান্ত কোন রোগী পায়নি।

বেনাপোল পৌরসভা মেয়র আশরাফুল আলম লিটন জানান ডেঙ্গু প্রতিরোধে মাস ব্যাপি কর্মসুচি নেয়া হয়েছে। কার্যক্রম চলছে।

উল্লেখ্য গত ২৫ জুলাই রুমানা নামে এক গৃহবধু ডেঙ্গু জ্বরে আক্রান্ত হয়ে ঢাকা স্কয়ার হাসপাতালে চিকিৎসাধী অবস্থায় মারা গেছেন। তিনি তার স্বামীর সাথে ঢাকাতে বসবাস করতেন। ছোট বোন নিহত রুমানাকে দেখতে হাসপাতালে যাওয়ায় তার মেয়েও ডেঙ্গু জ্বরে আক্রান্ত হয়ে যশোরে চিকিৎসাধীন আছে। এছাড়া শার্শা নাভারন বাজারের নজরুল ইসলামের ছেলে নাঈমুর রহমান তন্ময় গত এক মাস আগে ঢাকায় যায় লেখাপড়া করার জন্য। সেও ডেঙ্গু জ্বরে আক্রান্ত হয়ে যশোরে চিকিৎসাধীন আছে।

নিউজটি শেয়ার করুন

posted by: সময় সংযোগ টুয়েন্টিফোর

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

More News Of This Category
Copyright © by somoy songjog 24 | Developed by Md. Rajib