শনিবার, ১৮ সেপ্টেম্বর ২০২১, ০৩:৪৭ অপরাহ্ন
মুজিব বর্ষ
শিরোনাম :
৮ দিনেও খোঁজ মেলেনি চুরি হওয়া নবজাতকের ধারের ১০ কেজি চাল ফেরৎ চাওয়ায় ভাইয়ের ছেলের হাতে চাচা খুন! আটক তিন। বানারীপাড়ায় অধ্যক্ষ নিজাম উদ্দিন চির নিন্দ্রায় শায়িত নওগাঁয় প্রধানমন্ত্রীর উপহারের ঘর পেয়েও বাড়িছাড়া প্রতিবন্ধী পরিবার ত্রিশা‌লে জাতীয় কৃষক স‌মি‌তির সমা‌বেশ অনু‌ষ্ঠিত বাগেরহাটে চার দফা দাবিতে ডিপ্লোমা শিক্ষার্থীদের মানবন্ধন বাগেরহাট জেলা স্বাস্থ্য অধিকার ফোরামের নব গঠিত কমিটির পরিচিতি সভা মোরেলগঞ্জ আওয়ামী লীগ ১৭ বিদ্রোহী প্রার্থী কে দল থেকে বহিস্কার নওগাঁয় ৪ উপজেলার স্মার্ট জাতীয় পরিচয়পত্র বিতরন কার্যক্রম শুরু হয়েছে ৪৪ জেলে সহ ৪ টি ফিশিং ট্রলার আটক
সিলেট বিভাগের সকল জেলায় জেলা প্রতিনিধি আবশ্যক। আগ্রহীগন যোগাযোগ করুন somoysongjog24@gmail.com

ঠাকুরগাঁওয়ে সরকারি দোকান বরাদ্দে অনিয়ম অর্থ লেনদেনের অভিযোগ

ঠাকুরগাঁ, প্রতিনিধিঃ
  • Update Time : মঙ্গলবার, ২৯ জুন, ২০২১
  • ১৯ Time View
 ঠাকুরগাঁওয়ে সরকারি দোকান বরাদ্দে অর্থ লেনদেনসহ নানা অনিয়মের অভিযোগ উঠেছে। এতে তীব্র ক্ষোভ প্রকাশ করেছে স্থানীয়রা। জেলা সদরের ভুল্লী বাজার এলাকায় দোকান বরাদ্দ নিয়ে  এ অভিযোগ তুলেন তারা।
স্থানীয় ব্যবসায়ী ও এলাকাবাসিরা জানান, দীর্ঘদিন ধরে ভুল্লী বাজারে ব্যবসা পরিচালনা করে আসছিলেন। গেল মার্চে এসিল্যান্ড এর পক্ষ থেকে একটি নোটিশ দিয়ে ৫১টি দোকান উচ্ছেদ করা হয়। পরে সেখানে নতুন করে দোকান বরাদ্দের জন্য দরখাস্ত আহবান করা হয়। আহবানে হাটের ব্যবসায়ীদের পাশাপাশি বিভিন্ন প্রভাবশালী ব্যক্তি, রাজনীতিবিদরা আবদেন করেন। সেই প্রেক্ষিতে গেল বৃহস্পতিবার (২৪ জুন) এসিল্যান্ড উপস্থিত থেকে নতুন করে ৮৭ জনকে দোকান বরাদ্দ দেন।
বাজারের ব্যবসায়ী সাকির উদ্দিন, রাকিব, হেলাল ,আব্দুল মজিদ, মুকুলসহ অনেকে অভিযোগ কওে বলেন, বাজারটিতে দোকান ছিলো না এমন অনেকজনকেই দোকান বরাদ্দ দেয়া হয়েছে মোটা অঙ্কের টাকার বিনিময়ে। এছাড়া দোকানের সংখ্যা বৃদ্ধি করায় দোকান খুবই ছোট করা হয়েছে। এই অর্থ লেনদেনের সাথে স্থানীয় ইউপি চেয়ারম্যান যোগসাজস করে দোকান প্রতি ৫০ হাজার থেকে ৩ লাখ টাকা উত্তোলন করেছেন বিভিন্ন জনের কাছে। ফলে প্রকৃত ব্যবসায়ীরা দোকান বরাদ্দ থেকে বঞ্চিত হয়েছে।
ভুল্লী হাট বণিক সমিতির সাবেক সহ-সভাপতি আসলাম পারভেজ জানান, এক এগারো এর সময় ভুল্লী বাজার উচ্ছেদ করা হয়েছিলো। সে সময়ের জেলা প্রশাসক সাফায়েত হোসেন লটারির মাধ্যমে এই ব্যবসায়ীদের দোকান বরাদ্দ দেন। কিন্তু এতো বছর পর দোকানগুলোকে অবৈধ বলে উচ্ছেদ করা হয়। পরে স্থানীয় চেয়ারম্যান ও সরকার দলীয় কিছু নেতাসহ দায়িত্বপ্রাপ্তদের যোগসাজসে অর্থের বিনিময়ে দোকান বরাদ্দ দিচ্ছে। যা কাম্য নয়।
এ বিষয়ে স্থানীয় এলাকাবাসি ও চেম্বার অফ কমার্সের পরিচালক সাওন চৌধুরী  অভিযোগ করে বলেন, সরকারের রাজস্ব আয়ের লক্ষে নতুন করে দোকানগুলো বরাদ্দ দেয়া হয়েছে। কিন্তু প্রকৃত ব্যবসায়ীরা অভিযোগ করছেন ট্রেড লাইসেন্স দিবেন চেয়ারম্যান আর যেহেতু চেয়ারম্যান ইউনিয়ন আ’লীগের সাধারণ সম্পাদক তিনিই অর্থ লেনদেন করেছেন বলে শোনা যাচ্ছে। আমরা চাই বিষয়টি তদন্ত করে দোকানগুলো সুষ্ট বন্টন করা হোক। অন্যথায় এনিয়ে আইনশৃংখা পরিস্থিতি অবনতির শংকা রয়েছে।
এ বিষয়ে সংশ্লিস্ট বালিয়া ইউনিয়নের চেয়ারম্যান নূর-এ আলম ছিদ্দিকি (মুক্তির) সাথে যোগাযোগ করা হলে অর্থ লেনদেনের অভিযোগ অস্বীকার করে আর কোন মন্তব্য করতে রাজি হয়নি।
ঠাকুরগাঁও সদর উপজেলা সহকারী কমিশনার (ভূমি) কামরুল হাসান সোহাগ জানান, দোকান বরাদ্দের বিষয়ে অনিয়মের অভিযোগ থাকলে তা খতিয়ে দেখা হবে। ঘর বরাদ্দে টাকা লাগবেই বা কেন? সরকারি ফি যা আছে আমরা শুধু মাত্র সেটাই নিয়েছি।
এ বিষয়ে সদর উপজেলা নির্বাহী অফিসার আব্দুল্লাহ আল মামুন বলেন, চেয়ারম্যান দোকান বরাদ্দে টাকা নিয়েছে এ বিষয়ে কেউ লিখিত অভিযোগ করেন নি। অভিযোগ পেলে তদন্ত সাপেক্ষে ব্যবস্থা নেয়া হবে।
মহসিন হোসেন মিতুল

নিউজটি শেয়ার করুন

posted by: কাওসার হামিদ

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

More News Of This Category
Copyright © by somoy songjog 24 | Developed by Md. Rajib