বৃহস্পতিবার, ২১ জানুয়ারী ২০২১, ০৭:০০ পূর্বাহ্ন
মুজিব বর্ষ
শিরোনাম :
রাজশাহী বাগমারায় খাল থেকে এক অপরিচিত নারীর লাশ উদ্ধার ইউপি চেয়ারম্যান মন্নান মৃধার বিরুদ্ধে নৌকার মনোনয়ন প্রত্যাশী ৭ জন হাতে হাত রেখে শপথ উদয়কাঠী ইউপি চেয়ারম্যান পদে আহাদুজ্জামান লিটন মুন্সীর পক্ষে নৌকার মনোনয়ন ফরম জমা ময়মনসিংহে আমার এমপির দুই দিন ব্যাপি ওয়ারিয়েন্টেশন অনুষ্ঠিত জেলা পুলিশের পক্ষ থেকে সদ্য ভূমিষ্ঠ ২৪ টি কন্যা শিশুর পরিবারকে পাঠানো হলো ফুল ও নতুন পোশাক বকশীগঞ্জে বসতভিটা ও ফসলি জমি দখলের অভিযোগ ভূক্তভোগী পরিবারের রংপুরে কোভিড প্রচারে স্টেকহোল্ডারদের সাথে বৈঠক অনুষ্ঠিত চুয়াডাঙ্গার আলমডাঙ্গায় ভ্রাম্যমাণ অভিযান: ৪ টি ইটভাটা মালিককে ১ লক্ষ ৯০ হাজার টাকা জরিমানা। ভূঞাপুরে ৫ম শ্রেণির ছাত্রীকে শ্লীলতাহানি, অভিযুক্ত গ্রেফতার। রাজশাহী বাগমারায় একজন প্রতিভাবান প্রতিবন্ধীর মানবেতর জীবনযাপন।

চুয়াডাঙ্গার এসপি ফিরিয়ে দিলেন রাণীর সংসার,ফারিয়া ও রেশমি ফিরে পেলো বাবার আদর

মোঃ আজিজুর রহমান, চুয়াডাঙ্গা জেলা প্রতিনিধিঃ
  • Update Time : মঙ্গলবার, ১ ডিসেম্বর, ২০২০
  • ৪১ Time View
চুয়াডাঙ্গার পুলিশ সুপার মোঃজাহিদুল ইসলাম একের এক ভাঙ্গা সংসার জোড়া লাগিয়ে জেলা বাসির মনের মনিকোঠোয় স্থান করে নিয়েছে তারই ধারাবাহিকতায়
পুলিশ সুপারের হস্তক্ষেপে মোছাঃ রাণী খাতুন ফিরে পেল তার সুখের সংসার, ফারিয়া ও রেশমি পেল বাবার আদর।
মোছাঃ রাণী খাতুন (৩২), পিতা-মোঃ আব্দুল মজিদ, গ্রাম-ফার্মপাড়া, থানা ও জেলা-চুয়াডাঙ্গা এর সাথে অনুমান ০৭ বছর আগে মোঃ ফিরোজ হোসেন (৩৫), পিতা-মোঃ আব্দুর রহমান, সাং-মাছের দাইড়, থানা ও জেলা-চুয়াডাঙ্গা এর ইসলামী শরীয়াহ মোতাবেক বিবাহ হয়। তাদের সংসার জীবনে ১। মোছাঃ ফারিয়া (৭) ও ২। মোছাঃ রেশমি (০৪) নামের ফুটফুটে দুইটি মেয়ে জন্ম গ্রহন করে। অনুমান ০৩ বছর পূর্বে বিভিন্ন বিষয় নিয়ে তাদের মধ্যে বিরোধ দেখা দেয়। সংসারে চলমান বিরোধ এমন পর্যায়ে পৌঁছায় যে, গত ০১ মাস আগে মোঃ ফিরোজ হোসেন তার স্ত্রীকে তালাক দিয়ে পিতার বাড়ীতে তাড়িয়ে দেয়।
এমতাবস্থায় মোছাঃ রাণী খাতুন তার ০২টি কন্যা সন্তান ও নিজের অসহায়ত্ব থেকে রক্ষা পেতে পুলিশ সুপার, চুয়াডাঙ্গার নিকট একটি লিখিত অভিযোগ দায়ের করেন। পুলিশ সুপার, চুয়াডাঙ্গা মহোদয় উক্ত অভিযোগটি তার কার্যালয়ে অবস্থিত “উইমেন সাপোর্ট সেন্টার” এ কর্মরত নারী এএসআই (নিরস্ত্র)/মিতা রানী বিশ্বাস’কে দিলে তিনি উভয় পক্ষকে পুলিশ সুপারের কার্যালয়ে হাজির করেন। উইমেন সাপোর্ট সেন্টারের মাধ্যমে পুলিশ সুপার, চুয়াডাঙ্গা জনাব মোঃ জাহিদুল ইসলাম এর প্রত্যক্ষ মধ্যস্থতায় মোঃ ফিরোজ হোসেন তার তালাকপ্রাপ্ত স্ত্রী মোছাঃ রাণী খাতুন’কে ইসলামী শরীয়াহ মোতাবেক পুনরায় স্বামীর মর্যাদা প্রদানসহ সংসার করতে সম্মত হয়। ফলে পুলিশ সুপার, চুয়াডাঙ্গা মোঃ জাহিদুল ইসলাম এর হস্তক্ষেপে ফারিয়া ও রেশমি ফিরে পেল তার বাবার আদর স্নেহ। অন্য দিকে মোছাঃ রাণী খাতুন ফিরে পেল তার সুখের সংসার।

নিউজটি শেয়ার করুন

posted by: মোঃ জহিরুল ইসলাম

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

More News Of This Category
Copyright © by somoy songjog 24 | Developed by Md. Rajib