শুক্রবার, ২৫ জুন ২০২১, ০৬:২১ পূর্বাহ্ন
মুজিব বর্ষ
শিরোনাম :
আমতলীতে আয়রণ ব্রিজ ভেঙ্গে খালে ৭ গ্রামের ১৫ হাজার মানুষের ভোগান্তি কলারোয়া এনজিও সংস্থা উত্তরণের আয়োজনে সংবাদ সম্মেলন অনুষ্ঠিত নীলফামারীর কিশোরগঞ্জে কাবিটার বরাদ্ধ দিয়ে শহরে রুপান্তরিত হচ্ছে গ্রাম স্বাস্থ্যবিধি নিশ্চিতকরণে রংপুরে মোবাইল কোর্ট ‌ত্রিশাল পৌরসভার বা‌জেট ঘোষণা আমতলীতে হ্যাট্রিক পূর্ণ করলেন চাওড়া ইউপি চেয়ারম্যান বাদল খাঁন সড়কবাতিতে পুরো নগরীতে ফিরেছে প্রাণ-রসিক মেয়র নীলফামারী পৌর সভার ৪৬ কোটি টাকার বাজেট ঘোষণা কলারোয়ার ধানদিয়া কমিউনিটি ক্লিনিকে ব্র্যাকের উদ্যোগে মাস্ক বিতরণ ও আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত করোনায় স্কুল বন্ধ, অফিস কক্ষেই অনৈতিক কর্মকান্ডে লিপ্ত শিক্ষক-শিক্ষিকা: প্রতিবাদ করায় হয়রানিমূলক মামলা
সিলেট বিভাগের সকল জেলায় জেলা প্রতিনিধি আবশ্যক। আগ্রহীগন যোগাযোগ করুন somoysongjog24@gmail.com

গোপালগঞ্জে চেয়ারম্যানের দুর্নীতি ও প্রতারণার বিচারের দাবিতে প্রধানমন্ত্রী বারবর অভিযোগ

মোঃ রমজান চৌধুরী, গোপালগঞ্জ প্রতিনিধিঃ
  • Update Time : মঙ্গলবার, ৮ জুন, ২০২১
  • ৩১ Time View

গোপালগঞ্জ সদর উপজেলার ১নং জালালাবাদ ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান এম সুপারুল আলম (টিকে) এর ব্যাপক দুর্নীতি ও প্রতারনার বিচারের দাবিতে গত ১২মে ২০২১ ইং তারিখে প্রধানমন্ত্রী বারবরে অভিযোগ করে সংশ্লিষ্ট সকল দপ্তরে অভিযোগের অনুলিপি পাঠিয়েছেন ঐ পরিষদের ৪নং ওয়ার্ডের সদস্য কাওসার মোল্লাসহ এলাকার বিপুল সংখ্যক সাধারন মানুষ। এবিষয়ে এখন পর্যন্ত কোন দপ্তরের পক্ষ থেকে তদন্ত শুরু হয়নি।

অভিযোগ থেকে জানা যায় এম সুপারুল আলম টিকে ২০১১সালের ৭ই জুন চেয়ারম্যান নির্বাচিত হয়ে একেরপর এক দুর্নীতির মাধ্যমে সরকারের পক্ষ থেকে দরিদ্র ও সাধারন মানুষের জন্য সাহায্য সহযোগিতা গ্রামীন অবকাঠামো উন্নয়নমূলক কর্মকান্ডসহ এলাকার ধর্মীয়  ও শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের নামে বরাদ্দকৃত অর্থ আত্মসাৎকরে গাড়ী বাড়ী সহ নামে বেনামে প্রচুর পরিমানে অর্থ ও সম্পদ করেছেন।দরিদ্রদের প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ের ঘর দেওয়া বাবদ ঘর প্রতি ২০হাজার করে টাকা আদাই।

বয়স্ক, বিধবা, প্রতিবন্ধী ও মাতৃকালীন ভাতাভোগীর কাছ থেকে ৫ হতে ৬ হাজার টাকা উৎকোচ আদায়।ভিজিএফ কার্ডে নাম অন্তর্ভুক্তিতে ৩ হতে ৪ হাজার টাকা আদায় ও ৩০% চাল আত্মসাৎ। সরকারের একটি বাড়ি একটি খামার কর্মসূচীতে দলিও লোককে অন্তর্ভুক্তি। আরএমপি মহিলা নিয়োগে মাথাপিছু ৪০হতে ৫০ হাজার ঘুষ আদাই করেন। এছাড়াও এলজিএসপি, কাজের বিনিময়ে খাদ্য কর্মসূচী, টিআরসহ সকল পর্যায়ের বরাদ্দকৃত অর্থের নামমাত্র কাজ করে সিংহভাগ অর্থ আত্মসাত করে আসছে।

এছাড়াও চেয়ারম্যান তার ক্ষমতার অপব্যবহার করে ভিন্নমতের মানুষের ওপর দমন পীড়ন, এলাকায় এলাকায় দলাদলি বাধিয়ে রাখাসহ খুন জখমের মত ঘটনা ঘটিয়ে চলছে বলে অভিযোগে উল্লেখ করেন। এ সকল অভিযোগের বিষয়ে মোবাইলফোনে চেয়ারম্যান সুপারুল আলম টিকের মতামত জানতে চাইলে তিনি আমাদের প্রতিনিধিকে বলেন আপনার সঙ্গে আর কে আছে, রাখেন আগামীকাল এসে কথা বলব।

নিউজটি শেয়ার করুন

posted by: সময় সংযোগ টুয়েন্টিফোর

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

More News Of This Category
Copyright © by somoy songjog 24 | Developed by Md. Rajib