মঙ্গলবার, ২৭ অক্টোবর ২০২০, ১১:০৯ অপরাহ্ন
মুজিব বর্ষ
শিরোনাম :
ঝালকাঠিতে পুলিশের বাধায় যুবদলের প্রতিষ্ঠাবার্ষিকীর শোভাযাত্রা পন্ড ঝালকাঠিতে ১৭৮ জেলেকে চাল বিতরণ বিরামপুরে যুবদলের ৪২তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী পালিত ডিমলায় মোটর সাইকেলের নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে ৩-যুবক নিহত চুয়াডাঙ্গা পুলিশ অফিস ও জীবননগর থানা পরিদর্শ করলেন অতিরিক্ত ডিআইজি বানারীপাড়ায় জাতীয় বিজ্ঞান অলিম্পিয়াড প্রতিযোগীতার বিজয়ীদের মাঝে পুরস্কার বিতরণী অনুষ্ঠিত বানারীপাড়ায় প্রয়াত মুক্তিযোদ্ধা খালেক মাঝীর সম্পত্তি জালিয়াতির মাধ্যমে জবরদখলের পায়তারা বাগেরহাটে নিষিদ্ধ সুন্দরী কাঠ জব্দ বাগেরহাটে ৩ দিন ব্যাপী বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি মেলা বাগেরহাটে ৩২০ পিস ইয়াবাসহ মাদক ব্যবসায়ী আটক

এরশাদের সমাধি রংপুরেই হোক, দাবী সাধারণ মানুষের

Reporter Name
  • Update Time : রবিবার, ১৪ জুলাই, ২০১৯
  • ১৮০ Time View

আলো রহমান আখি, রংপুর ব্যুরোঃ

সংসদে বিরোধীদলীয় নেতা ও জাতীয় পার্টির চেয়ারম্যান সাবেক রাষ্ট্রপতি হুসেইন মুহম্মদ এরশাদের দাফন রংপুরে নিজ বাড়ি পল্লী নিবাসে করার দাবি জানিয়েছেন স্থানীয় নেতাকর্মীরা। গতকাল রোববার রংপুরের প্রত্যন্ত অঞ্চলের সাধারণ মানুষদের সঙ্গে কথা বললে এ প্রতিক্রিয়া বেরিয়ে আসে। জাতীয় পার্টির চেয়ারম্যান ও সাবেক রাষ্ট্রপতি হুসেইন মুহম্মদ এরশাদ আর নেই। এ খবর ছড়িয়ে পরেছে রংপুর মহানগরী সহ প্রত্যন্ত অঞ্চলেও। এ জন্য ভালো নেই এরশাদ ভক্ত সাধারণ মানুষজন। রংপুরের পীরগাছা উপজেলার ছাওলা ইউপির কিশামত ছাওলা গ্রামের বাসিন্ধা আবু বক্কর সিদ্দিক। বক্কর নামেই তার পরিচিতি। দলের মধ্যে নাম নেই তার। কোনও নেতা কর্মী নন তিনি। এরপরেও এরশাদ ভক্ত সে। জীবনের প্রতিটি জাতীয় নির্বাচনে লাঙ্গলে ভোট দিয়েছেন। এমন কী লাঙ্গল প্রতীক দেখলেই তার মাথা ঠিক থাকে না। অন্য প্রতীক যেন তার নিকট বিষ ফোঁড়া। বক্করের দাবী, রংপুরের মাটি এরশাদের ঘাটি। এরশাদের ঘাটিতেই তার কবর দেওয়া হোক। এরশাদের মৃত্যুর খবর শুনেই সে শোকে দিশেহারা হয়ে পরেছে। রংপুরের মাটিতেই এরশাদের কবর হোক দাবী এ অঞ্চলের হাজারো মজিদের। এ ছাড়াও রংপুরের বাসভবন পল্লীনিবাসে এরশাদের সমাধি করার দাবিতে গতকাল রোববার দুপুরে রসিক মেয়র ও দলের প্রেসিডিয়াম সদস্য মোস্তাফিজার রহমান জেলা জাতীয় পার্টি অফিসে আয়োজিত সংবাদ সম্মেলন করেছেন। সংবাদ সম্মেলনে তিনি বলেন, জীবনদশায় এরশাদের নির্দেশ ছিল, তার মৃত্যুর পর পল্লীনিবাসে সমাধি দিতে। তিনি বলেন, সাবেক রাষ্ট্রপতি,জাতীয় পার্টির চেয়ারম্যান হুসেইন মুহম্মদ এরশাদের শেষ ঠিকানা হউক রংপুরের পল্লী নিবাস এমনটাই আশা করছেন রংপুরের জাতীয় পার্টির নেতাকর্মীসহ সর্বস্তরের মানুষ। তাদের দাবি এরশাদকে রংপুরেই সমাহিত করা হউক। বাবা- মায়ের পাশে অথবা এরশাদের নিজহাতে গড়া স্বপ্নের পল্লী নিবাসে। আমাদের রাজনৈতিক পিতা হুসেইন মুহম্মদ এরশাদ স্যার পৃথিবী থেকে চিরবিদায় নিয়েছে। এক্ষেত্রে আমাদের একমাত্র দাবি স্যারের অসিয়ত করা স্থান পল্লীনিবাসে তাকে সমাধি করতে হবে। মোস্তফা আরো বলেন, ‘এরশাদ স্যার অসুস্থ শরীর নিয়ে এ বছরের মার্চে রংপুরে এসেছিলেন। তিনি নিজেই বলেছিলেন আমার শরীর ভালো নেই। আমি যেকোনো সময় মৃত্যু বরণ করতে পারি। তোমরা আমার ডিজাইনে পল্লীনিবাসে আমার সমাধি কমপ্লেক্সে করিও। আমি মৃত্যুরপরও তোমাদের মাঝে থাকতে চাই। তিনি বলেন,মঙ্গলবার স্যারের মরদেহ আসবে রংপুরে। তার জানাজা বাদ জোহর রংপুর কালেক্টরেট ঈদগাহ মাঠে হবে। এ জন্য সব ব্যবস্থা নেয়া হয়েছে। এতিম করে রাজনৈতিক পিতা হুসেইন মুহম্মদ এরশাদ চিরবিদায় নিয়েছেন। কিছু বলার ভাষা নেই আমাদের। জেলা জাতীয় পার্টির সাধারণ সম্পাদক ফখর -উজ-জামান জাহাঙ্গির বলেন, আমরা চাই আমাদের নেতাকে রংপুরেই কবরস্থ করা হউক। রংপুরের মানুষ সব সময় যেন তার কবর জিয়ারত ও দোয়া কামনা করতে পারে এ জন্য আমরা চাই তাকে রংপুরের দাফন করা হউক। সংবাদ সম্মেলনে জেলা ও মহানগর জাতীয় পার্টির নেতাকর্মীরা উপস্থিত ছিলেন। এ খবর পেয়ে রংপুরে এরশাদের নিজ বাড়িতে সকাল থেকেই হাজার হাজার জনতা ভিড় জমায়। তারা বলেন, অসুস্থ হওয়ার কিছু দিন আগে দলের বিভিন্ন স্তরের নেতার সঙ্গে আলাপচারিতায় তার অন্তিম সমাধি নিজ বাড়ি পল্লী নিবাসে করার জন্য ওছিয়ত করে যান সংসদে বিরোধীদলীয় নেতা ও জাতীয় পার্টির চেয়ারম্যান সাবেক রাষ্ট্রপতি হুসেইন মুহম্মদ এরশাদ। তাই তার দাফন রংপুরে করার দাবি জানিয়েছেন তারা। এরশাদ একটি সমাধি কমপ্লেক্স নির্মাণের পরিকল্পনা করেছিলেন। হঠাৎ অসুস্থ হওয়ায় এরশাদ পরিকল্পনা জনসমক্ষে বলে যেতে পারেননি। সে কারণে জাতীয় পার্টি রংপুর বিভাগ, জেলা, মহানগরসহ সহযোগী ও অঙ্গ সংগঠনসহ রংপুরবাসীর পক্ষ থেকে জাপা চেয়ারম্যানের দাফন তার ওছিয়ত করা জায়গায় করার আবেদন জানান তারা। পান দোকানি আব্দুল মালেক বলেন, এরশাদের বাবা মায়ের কবর রংপুরে । তাই আমরা দাবি করছি তাকে রংপুরই কবর দেয়া হউক।
প্রশঙ্গত: গত ২৮ জুন রংপুরে আসার কথা ছিল এরশাদের। তার সফরে কোনো রাজনৈতিক কর্মসূচি ছিল না। বাড়ির নির্মাণ কাজ দেখতেই তিনি রংপুরে আসতেন এবং নির্মাণাধিন বাড়িতেই এবার উঠার কথা ছিল তার। কিন্তু অসুস্থতার কারণে তিনি রংপুরে আসতে পারেননি। সুস্থ্য হয়ে তার নিজ হাতে গড়া স্বপ্নের ভবন পল্লী নিবাস দেখা হলনা। দুই রাত অবস্থান শেষে ৩০ জুন এরশাদের ঢাকায় ফেরার সূচিও চূড়ান্ত হয়েছিল। শারীরিক অসুস্থতার কারণে হেলিকপ্টারে করে তার আসার কথা ছিল। কিন্তু অসুস্থতার কারণে আশা হয়নি। রংপুর শহরে অবস্থিত এরশাদের ব্যক্তিগত আবাস ‘পল্লী নিবাস’ এটি সংস্কার করে তিনতলা ভবন গড়া হচ্ছে। এতদিন বাউন্ডারির মধ্যে আলাদা আলাদা ভবন ছিলো। হুসেইন মুহম্মদ এরশাদ থাকতেন দ্বিতল ভবনে। আর পিএসসহ অন্যান্য স্টাফদের ছিলো একতলা ভবন। পুরাতন ভবন ভেঙে তিনতলা কমপ্লেক্স করা হচ্ছে। দ্বিতীয় তলায় এরশাদ ও ছেলে এরিখের কক্ষ তৈরি করা হয়েছে। ভবনটির দ্বিতীয় তলার কাজ শেষ, চলমান রয়েছে তৃতীয় তলার ফিনিশিংয়ের কাজ। এবার এলে সেখানেই থাকার কথা ছিল এরশাদে। সর্বশেষ এরশাদ রংপুর সফরে এসেছিলেন ৩ মার্চ। তখনও বাড়ির কাজ দেখতেই রংপুরে এসেছিলেন । রোববার সকালে সকল জল্পনা কল্পনার অবসান ঘটিয়ে চির বিদায় নেন সাবেক এই রাষ্ট্রপতি। মৃত্যু কারণে এরশাদের পল্লী নিবাস দেখা হলনা। তাই রংপুরের মানুষের দাবি সাবেক এই রাষ্ট্রপতিকে পল্লী নিবাসেই দাফন করা হউক।
উল্লেখ্য: ১৯৩০ সালের ২০ মার্চ বৃহত্তর রংপুরের কুড়িগ্রামের মাতুলালয়ে জন্ম নেওয়া জাপা চেয়ারম্যান হুসেইন মুহম্মদ এরশাদ ইসলামের জন্য খেদমত করেছেন। তিনি তার শাসনামলে রাষ্ট্র ধর্ম ইসলাম করেন। এছাড়াও টাকার মধ্যে মসজিদের ছবি ও মসজিদের বিদ্যুত বিল মওকুফ করে বিশেষ অবদান রাখেন। তিনি দেশে উপজেলা পদ্ধতি চালুসহ ৯ বছরের শাসনামলে ব্যাপক উন্নয়ন করেছেন। ১৯৯০ সালের ৬ ডিসেম্বর ক্ষমতা থেকে বিদায় নেন হুসেইন মুহম্মদ এরশাদ। এরপর, গ্রেফতার হয়ে কারাগারে থেকেই রংপুরের পাঁচটি আসনে নির্বাচন করে জয়ী হন তিনি। বর্ণাঢ্য রাজনৈতিক ক্যারিয়ারে রংপুর থেকে কোনও নির্বাচনেই হারেননি পল্লীবন্ধু এরশাদ। দশম জাতীয় সংসদে প্রধান বিরোধী দল ছিল তার নেতৃত্বাধীন জাতীয় পার্টি। একাদশ জাতীয় সংসদেও জাতীয় পার্টি প্রধান বিরোধী দলের আসনে। দশম জাতীয় সংসদে এরশাদ প্রধানমন্ত্রীর বিশেষ দূতের পদমর্যাদায় ছিলেন। একাদশ সংসদ নির্বাচনে জয়ী হওয়ার পর জাতীয় পার্টির সংসদ সদস্যরা সর্বসম্মতভাবে তাকে বিরোধীদলীয় নেতার পদে বসান।

নিউজটি শেয়ার করুন

posted by: সময় সংযোগ টুয়েন্টিফোর

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

More News Of This Category
Copyright © by somoy songjog 24 | Developed by Md. Rajib